অ্যাডভেঞ্চার তার বরাবরই পছন্দ। বিশেষ করে ট্রেকিংয়ের সখ তার দীর্ঘ বছরের। এর আগেও একাধিকবার ট্রেকিং করেছেন দেশের বিভিন্ন প্রান্তে। কিন্তু সেই সখই যে মহারাষ্ট্রের প্রাক্তন ক্রিকেটার শেখর গাওলির মৃত্যুর কারণ হবে, তা ভ্রুণাক্ষরেও বুঝতে পারেননি তিনি। একটা অকস্মাৎ দুর্ঘটনা, আর সব শেষ। ২৫০ ফুট গভীর খাদে পড়ে মৃত্যু হল শেখর গাওলির। ট্রেকিং করতে গিয়ে পা পিছলেই প্রাক্তন ক্রিকেটারের মৃত্যু বলে জানানো হয়েছে পুলিসের তরফে। এই খবর জানার পর থেকেই শোকে বিহ্বল প্রাক্তন ক্রিকেটারের গোটা পরিবার।

আরও পড়ুনঃ'দিদি' তো বটেই, ইস্টবেঙ্গলের আইএসএল খেলার কারিগর 'দাদাও'

ট্রেকিং করার নেশা ছিল শেখরের। এবার অ্যাডভেঞ্চারের টানে বন্ধুদের সঙ্গে গিয়েছিলেন  পশ্চিমঘাট পর্বতে। কিন্তু আর ফেরা হল না।  নাশিকের ইগাতপুরি হিল স্টেশনের কাছে দুর্ঘটনাটি ঘটে। ২৫০ ফুট গভীর খাদ হওয়ায় তাকে তড়িঘড়ি উদ্ধার করা বা বাঁচানোর কোনও চেষ্টা করাই সম্ভব হয়নি। দীর্ঘ সময় খোঁজাখুঁজির পর অবশেষে প্রশাসন শেখর গাওলির দেহ উদ্ধার করে। ইগাতপুরি থানার এক আধিকারিক  জানিয়েছেন,'বুধবার সকালে শেখর গাওলির দেহ উদ্ধার করা হয়। তারপর তা পাঠানো হয় ময়নাতদন্তে। য়নাতদন্তের পর মৃতদেহ পরিবারের সদস্যদের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে।'

শেখর গাওলির ক্রিকেট কেরিয়ার খুব একটা দীর্ঘ হয়নি।  মহারাষ্ট্রের হয়ে ২টি ফার্স্ট ক্লাস ম্যাচ খেলেছিলেন তিনি। তিনি মহারাষ্ট্রের রঞ্জি দলের সহকারী কোচ হিসেবে কাজ করেন। আপাতত মহারাষ্ট্রের অনূর্ধ্ব-২৩ দলের ফিটনেস ট্রেনারের ভূমিকা পালন করছিলেন গাওলি। মহারাষ্ট্র ক্রিকেট সংস্থার তরফে গাওলির মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করা হয়। সমবেদনা জানানো হয় তার পরিবারের প্রতি। প্রাক্তন ক্রিকেটারের এই মর্মান্তিক মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছে মহারাষ্ট্রের বর্তমান ও প্রাক্তন ক্রিকেটাররা। শোকস্তব্ধ ক্রিকেট মহলও।

আরও পড়ুনঃজানুন ভারতীয় ক্রিকেটারদের 'ডান্সার' বউদের সম্পর্কে, যাদের নাচ দেখে 'বোল্ড আউট' সকলেই

আরও পড়ুনঃরোহিত শর্মা,হরভজন থেকে লারা, তারকা ক্রিকেটারদের বিতর্কিত ছবি, যা ঝড় তুলেছিল নেট দুনিয়ায়