বিশ্বকাপ পর্যন্তই অধিনায়ক হিসেবে নির্বাচিত ছিলেন বিরাট কোহলি। কিন্তু বিশ্বকাপের সেমিফাইনাল থেকেই ভারত বিদায় নেওয়ার পরে কীভাবে তিনি সরাসরি অধিনায়ক হয়ে গেলেন, এই নিয়ে প্রশ্ন তুলে দিলেন কিংবদন্তি ভারতীয় ব্যাটসম্যান সুনিল গাভাস্কার। তাঁর মতে বিরাট কোহলিকেই যদি অধিনায়ক রেখে দিতে হয়, তাহলেও নতুন করে তাঁর নিয়োগের কথা ঘোষণা করা উচিত ছিল।

সম্প্রতি এক সংবাদপত্রে নিজের কলামে গাভাস্কার লিখেছেন, অধিনায়ক বাছার জন্য আলাদা করে বৈঠক না করেই ওয়েস্টইন্ডিজ সফরের জন্য দল বেছে নিয়েছেন জাতীয় নির্বাচকরা। ফলে বিরাট নিজের ইচ্ছায় অধিনায়ক হয়ে গেলেন, নাকি নির্বাচকরা তাঁকে বেছে নিলেন সেই বিষয়টা অস্পষ্ট হয়ে রয়েছে।  তিনি জানান, কোহলিকে পুনর্বহাল করতে হলে নির্বাচকদের অন্তত পাঁচ মিনিটের জন্য হলেও বৈঠকে বসা উচিত ছিল।

এখানেই শেষ নয়, অধিনায়ক কোহলি তাঁর পছন্দের দল আদৌ পাচ্ছেন কিনা তাই নিয়েও প্রশ্ন তুলে দিয়েছেন গাভাস্কার। জানিয়েছেন, অধিনায়ক হিসেহবে কোহলিকে আগে নির্বাচিত করে তারপর দল নির্বাচনের সময় তিনি কাকে কাকে দলে চাইছেন তা জানা উচিত ছিল নির্বাচকদের। এটা না করার ফলে ভারতীয় দল নির্বাচন নিয়ে জনমাসে ভুল বার্তা যাচ্ছে বলেও মত তাঁর।

তিনি জানিয়েছেন, কোহলিকে অধিনায়ক বাছাই বা তাঁর মত না নিয়ে দল বাছাই  করার ফলে সকলে মনে করছেন একেক জনের জন্য একেক রকম নিয়ম। কেদার যাদব দীনেশ কার্তিকরা খারাপ খেলার জন্য বাদ পড়লেন। অন্যদিকে দলকে ফাইনালেও তুলতে না পারার পরও অধিনায়ক হিসেবে কাজ চালিয়ে যাওয়ার লাইসেন্স পেলেন বিরাট। এই ভুল ধারণা দলের পক্ষে অত্যন্ত ক্ষতিকর বলেই জানিয়েছেন তিনি।