অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে পিঙ্ক বল টেস্টে লজ্জার হারের সম্মুখীন হতে হয়েছে ভারতীয় দলকে। দ্বিতীয় ইনিংসে ৩৬ রানে শেষ হয়েছে বিরাটদের ইনিংস। ভারতের টেস্ট ক্রিকেটের ইতিহাসে সর্বনিম্ন স্কোর করে লজ্জার নজির সৃষ্টি করেছে ভারতীয় দল। দিন-রাতের টেস্টে লজ্জার হারের পর ক্রিকেট বিশেষজ্ঞ, দেশ-বিদেশের প্রাক্তন প্লেয়ার থেকে দেশ জুড়ে ক্রিকেট প্রেমিরা সকলেই সমালোচনা করছেন কোচ রবি শাস্ত্রীর দলের। দলের এমন ব্যাটিং বিপর্যয় ও অসহায় আত্মসমর্পন দেখে হতাশ অধিনায়কর বিরাট কোহলিও। এই পরিস্থিতি পিঙ্কবল টেস্ট ব্যাটসম্যানদের কীভাবে ব্যাট করা উচিৎ সেই টিপস দিলেন মাস্টার ব্লাস্টার সচিন তেন্ডুলকর। 

নিজের সোশ্যাল মিডিয়ায় চ্যানেলে এক সাক্ষাৎকারে সচিন তেন্ডুলকর জানান,'পিঙ্ক বল অর্থাৎ দিন-রাতের টেস্টে ব্যাটসম্যানদের শুধু ব্যাটিং নয়, লক্ষ্য রাখতে হবে আরও অনেকগুলি বিষয়ের উপর। ব্যাটসম্যানদের কি কি করণীয় তাও যতটা সম্ভব বলার চেষ্টা করেছেন আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে একশো সেঞ্চুরির মালিক।' একইসঙ্গে সচিন তেন্ডুলকর বলেছেন, পিঙ্ক বল টেস্টে সফল হতে হলে, ব্যাটসম্যানদের শুধু বোলারদের সম্মান দিলে চলবে না, সম্মান দিতে হবে আবহাওকেও। একইসঙ্গে মাথায় রাখতে হবে ঘড়ির উপরও। কারণ সময়ের সঙ্গে সঙ্গে খেলাও পাল্টানো উচিৎ দিন-রাতের টেস্টে।'

ব্যাটসম্যানদের টিপস দিতে গিয়ে সচিন বলেছেন,'দিনের দ্বিতীয় সেশনের মাঝ থেকে শেষ সেশনের প্রথম দিকটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। কারণ সূর্য ডোবার সময় অনেক সময় পিচের ঘাস ঠান্ডা হতে থাকে, হালকা কুয়াশাও পড়ে। ফলে সেই সময় বেলর  মুভমেন্ট একটু বেশি হয়। ফলে সেই সময় ব্যাটসম্যানজের উচিৎ নিজেকে একটি সংযত রেখে উইকেট বাঁচিয়ে ক্রিজে টিকে থাকাই প্রথম লক্ষ্য হওয়া উচিৎ। আর ধীরে ধীরে পার্টনারশিপ তৈরি করা উচিৎ। এরপর কুয়াশায় বল একটু ভারী হওয়ার পর যখন ব্যাটে বলও আসবে উইকেটে ভালো, তখনই শট খেলায় যাওয়া উচিৎ। একইসঙ্গে দি নের শুরুতে অর্থাৎ দুপুরের দিকে যতটা সম্ভব ঝুঁকি কম নিয়ে রান সংগ্রহ করে নেওয়া উচিৎ।' সচিনের এই টিপস আগামি দিনে বিরাটরা কতটা কাজে লাগান এখন সেটাই দেখার।