১১৭ দিন পরে ফিরেছে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট। মুখোমুখি হয়েছে ইংল্যান্ড এবং ওয়েস্ট ইন্ডিজ। জেনে নিন এই সিরিজ এবং পরবর্তীতে কি কি নতুন নিয়মের সাথে অভ্যস্ত হতে উঠতে হবে ক্রিকেটারদের। 

আরও পড়ুনঃবর্তমানে বিশ্বের সব থেকে 'সেক্সিয়েস্ট অ্যাথলিট', জানুন আলিশা স্মিডের কাহিনি

• ম্যাচের প্রথম বলটি হওয়ার সময় সমবেত খেলা দেখতে আসা মানুষদের উল্লাস, বাউন্ডারি কিংবা ওভার বাউন্ডারি হাঁকানোর পর তাদের গর্জন, উইকেট পড়লে স্টেডিয়ামে প্রত্যেক মানুষের হাহাকার এই সমস্ত কিছু আর পাবেন না ক্রিকেটাররা। বা পেলেও তা হবে হয়তো কৃত্রিম আওয়াজ। কারণ বেশ কিছুদিনের জন্য মাঠে আসা নিষিদ্ধ থাকবে দর্শকদের। 


• ক্রিকেট মাঠে বিশেষ করে টেস্টে লালারসের ব্যবহার করে বল চকচকে রাখতে পারবেন না বোলার কিংবা ক্রিকেটাররা। আইসিসির এই সিদ্ধান্ত নিয়ে বিতর্ক কম হয়নি। কিন্তু শেষ পর্যন্ত এই নিয়ম বজায় রাখছে আইসিসি। লালারস ব্যবহারকারী দলকে মাঠে প্রথমে দুবার সতর্ক করে ছেড়ে দেওয়া হবে। তারপরে পাঁচ রান পেনাল্টি হিসাবে দেওয়া হবে সেই দলের বিপক্ষ দলকে।  

• মাঠের মধ্যে খেলা চলাকালীন কোনও খেলোয়াড়ের মধ্যে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের লক্ষণ দেখা দিলে সেই ক্রিকেটারের পরিবর্ত নামাতে পারবে সেই দল, অবশ্যই ম্যাচ রেফারির অনুমতি নিয়ে। তবে এই নিয়ম শুধু টেস্টেই সীমাবদ্ধ থাকছে। 


• ম্যাচে থাকবে না নিরপেক্ষ কোনও দেশের আম্পায়ার। হোম টিমের দেশের কোনও আম্পায়ারকেই খেলা পরিচালনা করতে হবে। যেহেতু ভাইরাসের সংক্রমণের আশঙ্কা কেটে যায়নি পুরোপুরি। তাই বাইরের দেশ থেকে আনা হবেনা কোনও আম্পায়ার।


• হোম টিমের আম্পায়ার হওয়ায় সেই নিয়ে যাতে বিতর্ক তৈরি না হয় তাই অতিরিক্ত ডিসিশন রিভিউ সিস্টেমের ব্যবস্থা থাকছে। দুটি থেকে সংখ্যা বেড়ে তিনটে বা চারটে-তে দাঁড়াতে পারে। 


• খেলার মাঝে নির্দিষ্ট সময় অন্তর থাকবে ক্লিনিং ব্রেক। সেই সময় মাঠে এসে গ্রাউন্ড স্টাফরা জীবাণুমুক্ত করবেন উইকেট এবং বেল। খেলোয়াড়রা একে অপরের গ্লাভস, শার্ট কিংবা জলের বোতল ব্যাবহার করতে পারবেন না।

আরও পড়ুনঃসৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের জন্মদিনে ফিরে দেখা ২২ গজে তার 'দাদাগিরি'

আরও পড়ুনঃরক্তদান ও প্রতিবন্ধীদের খাদ্য সামগ্রী বন্টন,নবদ্বীপে একটু অন্যভাবেই পালিত হল সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের জন্মদিন