রুদ্ধশ্বাস ম্যাচে ৭ রানে ইংল্যান্ডকে হারিয়ে সিরিজ জিতল ভারতীয় দল। একইসঙ্গে টেস্ট, টি২০-র পর ওয়ানড সিরিজ জিতে ব্রিটিশদের বিরুদ্ধে সিরিজ জয়ের হ্যাটট্রিকও পূরণ করল বিরাট কোহলি। ম্যাচে প্রথমে ব্যাট করে ৩২৯ রান করে টিম ইন্ডিয়া। রান তাড়া করতে নেমে হাড্ডাহাড্ডি ম্যাচে ইংল্যান্ড ৯ উইকেট হারিয়ে করে ৩২২ রান। এই ম্যাচ জয়ের ফলে তিন ম্যাচের সিরিজ ২-১ ব্যবধানে জিতল ভারতীয় দল। আইপিএলের আগে জয় দিয়েই আন্তর্জাতিক সিরিজ শেষ করল ভারতীয় দল।

রবিবারও টসে জিতে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয় ইংল্যান্ড। ওপেনিংয়ে দুরন্ত শুরু করেন দুই ওপেনার শিখর ধওয়ান ও রোহিত শর্মা। ১০৩ রানের পার্টনারশিপ করেন তারা।  নিজের অর্ধশতরানও পূরণ করেন শিখর ধওয়ান। এরপর রোহিত, রোহিত ও কোহলি পরর আউট হওয়ায় কিছুটা চাপ বাড় ভারতের উপর। বড় রান করতে ব্যর্থ হন কেএল রাহুলও। তবে ঋষভ পন্থ ও হার্দিক পান্ডিয়ার ঝোড়ো পার্টনারশিপ গড়েন। ৬২ বলে ৭৮ রানের ইনিংস খেলেন পন্থ ও ৪৪ বলে ৬৪ রানের ইনিংস খেলেন হার্দিক। শেষে ক্রুণাল পান্ডিয়ার ২৫ ও শার্দুল ঠাকুরের ৩১ রানের ইনিংস খেলেও। যদিও ১০ বল বাকি থাকতেই  ৩২৯ রানে অল আউট হয়ে যায় ভারতীয় দল।

রান তাড়া করতে নেমে নিয়মিত ব্যাধানে উইকেট হারিয়ে চাপ বাড়তে থাকে ইংল্যান্ডের উপর। দলের একশো রান হওয়ার আগেই প্যাভেলিয়নে ফেরত  চলে যান জেসন রয়, জনি বেয়ারস্টো, বেন স্টোকস, জস বাটলাররা। ডেভিড মালান ৫০, লিভিংস্টোন ৩৬ ও মঈন আলি ২৯ রান করে লড়াই দেওয়ার চেষ্টা করলেও, একসময় ২৫৮ রান ৮ উইকেট হারিয়ে বড় রানে হারের ভ্রুকুটি ছিল ইংল্যান্ডের সামনে। কিন্তু অনবদ্য লড়াই চালিয়ে যান স্যাম কুরান। ৯৫ রানে অপরাজিত থেকে দলকে জয়ের দোরগোড়ায় নিয়ে গিয়েও ব্যর্থ হন তিনি। ৩২২ রানে শেষ হয় ইংল্যান্ডের ইনিংস। টানা তিন সিরিজ জিতে উচ্ছ্বসিত ভারতীয় দল।