২০০৮ সালে ভারতীয় ক্রিকেট দলের দলের অস্ট্রেলিয়া সফরের 'মাঙ্কিগেট' বিতর্কের স্মৃতি এখনও সকলের মনে তাজা। সেবার ভারতীয় দলের স্পিনার হরভজন সিংহের উদ্দেশে বর্ণবিদ্বেষী মন্তব্য করেছিলেন অস্ট্রেলিয়ার অ্যান্ড্রু সাইমন্ডস। তা নিয়ে বিতর্কও কম হয়নি। ১৩ বছর পর সেই 'মাঙ্কিগেট' বিতর্কের স্মৃতি ফিরল ভারত বনাম অস্ট্রেলিয়ার সিডনি টেস্টে। ভারতীয় দলের দুই প্লেয়ার মহম্মদ সিরাজ ও জসপ্রীত বুমরা বর্ণবিদ্বেষমূলক মন্তব্যের শিকার হয়েছেন।

বুমরা এ সিরাজ জানিয়েছেন,ফাইন লেগে যখন সিরাজ ফিল্ডিং করছিলেন তখন গ্যালারির র‌্যান্ডউইক স্ট্যান্ড থেকে কোনও দর্শক তাঁর উদ্দেশে বর্ণবিদ্বেষী মন্তব্য করেন। জসপ্রীত বুমরার ক্ষেত্রেও নাকি একই ঘটনা ঘটেছে। বিষয়টি বেশ কয়েকবার শোনার পর টিম ম্যানেজমেন্টকে বিষয়টি জানায় ভারতীয় ক্রিকেটাররা। তৃতীয় দিনের খেলা শেষ হয়ার পরেই ভারত অধিনায়ক আজিঙ্কা রাহানে-সহ মহম্মদ সিরাজ এবং জসপ্রীত বুমরাহকে দেখা যায় দীর্ঘক্ষন তাঁরা মাঠে দাড়িয়ে আম্পায়ারদের সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করতে। এই বিষয়টি যে মোটেই হালকাভাবে নিচ্ছে না ভারতীয় দল, তা এদিন প্লেয়ারদের শারীরিক ভাষা থেকেই প্রমাণিত।

শুধু তৃতীয় দিন নয়, দ্বিতীয় দিনেও মহম্মদ সিরাজ ও জসপ্রীত বুমরা বর্ণবিদ্বেষীমূলক মন্তব্যের শিকার হয়েছেন বলে অভিযোগ। বিষয়টি নিয়ে ইতিমধ্যেই আইসিসির কাছে অভিযোগ জানানো হয়েছে। সঠিকভাবে বিষয়টি খতিয়ে দেখার জন্য চাপ বাড়ানো হয়েছে বিসিসিআইয়ের তরফেও। মাঠে দর্শক কম থাকায় খতিয়ে দেখা হতে পারে অডিও ক্লিপও।  অভিযোগের সত্যতা প্রমাণিত হলে আগামি দিনগুলিতে মাঠে দর্শক প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হতে পারে। সম্প্রতি আমেরিকায় জর্জ ফ্লয়েডের মৃত্যুর পর বিশ্ব জুড়ে বর্ণবৈষম্যের বিরুদ্ধে আন্দোলন দেখা গিয়েছিল। যেই রেশ এখনও অব্যাহত। তারমধ্যেই দুই ভারতীয় ক্রিকেটারের বর্ণবৈষম্যের শিকার হওয়ার ঘটনা সত্যিই অনভিপ্রেত সকলের কাছে।