সিডনি টেস্ট শুধু অশ্বিন ও হনুমা বিহারীর ম্যাচ বাঁচানো ঐতিহাসিক ব্যাটিংয়ের জন্যই শিরোনামে আসেনি। শিরোনামে এসছিল দর্শকদের বর্ণবিদ্বেষমূ ক আচরণের। সিডনিতে পরপর দুদিন বর্ণবৈষম্যের শিকীর হয়েছিলেন ভারতীয় পেসার মহম্মদ সিরাজ। আরেক পেসার জসপ্রীত বুমরাও শিকার হয়েছিলেন একই ঘটনার। যা নিয়ে মাঠের মাঝেই আম্পেয়ারকে অভিযোগ জানিয়েছিলেন ভারত অধিনায়ক অজিঙ্কে রাহানে। তোলপার হয় ক্রিকেট বিশ্ব। অভিযোগ জানানো হয় আইসিসিকেও। তাই ব্রিসবেন টেস্টে অতিরিক্ত সতর্কতা নিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

চতুর্থ টেস্টে কর্তৃপক্ষের তরফ থেকে পরিষ্কার দর্শকদের হুঁশিয়ারী দিয়ে জানিয়ে দেওয়া আছে, শুধু ক্রিকেট প্রেমির মত মাঠে আসুন। খেলা দেখুন, উপভোগ করুন। যাকে পছন্দ তাকেই সমর্থন করুন। কিন্তু বর্ণবিদ্বেষী আচরণ থেকে সম্পূর্ণ বিরত থাকুন। আর সেরকম কোনও আচরণ করলে কপালে জুটবে দুঃখ। সোজা গলা ধাক্কা দিয়ে মাঠের বাইরে বের করে দেওয়া হবে বলেও জানানো হয়েছে কর্তৃপক্ষের তরফে। ব্রিসবেনে ৫০ শতাংশ দর্শক প্রবেশের অনুমতি দেওয়া হয়েছে। সিডনি টেস্টে যা হয়েছে, সেটা ব্রিসবেনে কোনও ভাবে বরদাস্ত করা হবে না বলে জানিয়ে দিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

শুধু ব্রিসবেন কর্তৃপক্ষ নয়, দর্শকদের উদ্দেশ্যে চরম হুঁশিয়ারী দিয়েছেন খোদ অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক টিম পেইন। তিনি বলেছেন,'মাঠে আসুন ক্রিকেটকে উপভোগ করতে। যাকে ইচ্ছে সমর্থন করুন। অস্ট্রেলিয়াকে করুন। ভারতকে করুন। ইচ্ছে হলে আম্পায়ারকেও করুন। কিন্তু বর্ণবিদ্বেষী ভাবনা একেবারে স্টেডিয়াম গেটের বাইরে রেখে মাঠে ঢুকুন।' ফলে সিডনির পুনরাবৃত্তি যাতে কোনওভাবেই যাতে না হয় সেই দিক থেকে কোনও খামতি রাখছে না ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া।