চেন্নাইতে চুতর্থ দিনের শেষে ম্যাচ বাঁচাতে লড়ছে ভারতীয় ক্রিকেট দল। ইংল্যান্ডের ৪২০ রানের বিশাল টার্গেট তাড়াকরতে নেমে দিনের শেষ ভারতের স্কোর ৩৯ রানে এক উইকেট। ফিরে গিয়েছেন রোহিত শর্মা। ক্রিকেজে রয়েছেন চেতেশ্বর পুজারা ও শুভমান গিল। পঞ্চমদিনে ৯০ ওভারে বারতের দরকার ৩৮১ রান হাতে ৯ উইকেট। ফলে পিচে যেইভাবে বল ঘুরছে তাতে ম্যাচ বাঁচানোই প্রধান লক্ষ্য পুজারা, শুভমান, কোহলি, রাহানে, পন্থদের কাছে। অপরদিকে ইংল্যান্ডের জয়ের জন্য দরকার ৯ উইকেট।

চতুর্থ দিনে ভারতীয় ইনিংসে  অশ্বিন ও সুন্দর কিছুটা লড়াই দেওয়ার চেষ্টা করে। তৃতীয় ও চতুর্থ দিনের সকাল মিলিয়ে ৮০ রানের পার্টনারশিপ করেন দুজন। শেষে ৩১ রানে আউট হন অশ্বিন। তবে একদিক থেকে লড়াই চালিয়ে যান ওয়াশিংটন সুন্দর। ব্রিসবেন টেস্টের মতই চেন্নাইতে অনবদ্য ইনিংস খেলে নিজের অর্ধশতরান পুরণ করেন তিনি। অপরদিক থেকে একের পর এক উইকেট পড়ায় শেষে ৮৫ রানে নট থেকে যান ওয়াশিংটন সুন্দর। হাতছাড়া হয় টেস্টে কেরিয়ারের প্রথম সেঞ্চুরি। ৩৩৭ রানে শেষে হয় ভারতের প্রথম ইনিংস। 

ভারতকে ফলো অন না করিয়ে ২৪১ রানের লিড নিয়ে দ্বিতীয় ইনিংসে খেলতে নামে ইংল্যান্ড দল। কিন্তু অশ্বিনের ঘূর্ণির যাদুর সামনে এদিন দাঁড়াতে পারেনি কোনও ইংরেজ ব্যাটসম্যান। ৬ উইকেট নিয়ে একাই অশ্বিন শেষ করে দেন ইংল্যান্ডের দ্বিতীয় ইনিংস। ব্রিটিশদের হয়ে সর্বোচ্চ ৪০ রান করেন জো রুট। ১৭৮ রানে শেষ হয় ইংল্যান্ডের দ্বিতীয় ইনিংস। অশ্বিনের ৬টি উইকেট ছাড়াও ২টি উইকেট পান নাদিম ও একটি করে উইকেট পান ইশান্ত ও বুমরা। ২৪১ রানের লিডের সৌজন্যে ভারতকে ৪২০ রানের টার্গেট দেয় ইংল্যান্ড। দিনের শেষে ভারতের স্কোর ৩৯/১। 

পঞ্চম দিনে ভারতীয় ব্যাটসম্যানদের লক্ষ্য দিনভর ক্রিজে থেকে ম্যাচ বাঁচানো। যার জন্য পুজারা-কোহলি, রাহানেদের আরও বাড়তি দায়িত্ব নিতে হবে বলেই মত বিশেষজ্ঞদের। অপরদিকে ৯ টি উইকেট টেকিং বলের খোঁজে নামবে ইংল্যান্ড। ভারতের মাটিতেনিজের শততম টেস্টে দ্বিশতরান করে এমনিতেই রেকর্ড গড়েছেন জো রুট। এবার ম্যাচ জিতে তা স্মরণীয় করে রাখতে মরিয়া ইংল্যান্ড অধিনায়ক। ক্রিকেট বিশেষজ্ঞদের মতেও পিচের যা অবস্থা তাতে ম্যাচে অ্যাডভান্টেজ ইংল্যান্ড দলের।