চেন্নাইয়ে ভারতের বিরুদ্ধ প্রথম টেস্টের দ্বিতীয় দিনও নিজেদের নামে করল ইংল্যান্ড। দ্বিতীয় দিনের শেষ রানের পাহাড়ে ব্রিটিশ লায়ন্সরা। প্রথম দিন যেখানে শেষ করেছিলেন জো রুট, দ্বিতীয় দিনেও ঠিক সেখান থেকেই খেলা শুরু করেন জো রুট। ডবল সেঞ্চুরি করে গড়লেন অনন্য রেকর্ড। ক্রিকেট ইতিহাসে প্রথম ব্যাটসম্যান হিসেবে শততম টেস্টে দ্বিশতরানকারী হলেন ইংল্যান্ড অধিনায়ক। যোগ্য সঙ্গ দিলেন বেন স্টোকসও। দ্বিতীয় দিনের দিনের শেষে ইংল্যান্ডের স্কোর ৫৫৫ রানে ৮ উইকেট। 

দ্বিতীয় দিনে ২৬৩ রানে ৩ উইকেট থেকে খেলা শুরু করে জো রুট ও বেন স্টোকস। ম্যাচে ফিরতে হলে ভারতের দরকার ছিল দ্রুত ইংল্যান্ড দলের ইনিংস শেষ করা। কিন্তু তা করতে সমর্থ হননি ভারতীয় বোলাররা। পালটা নিজের অবনদ্য ব্যাটিং চালিয়ে যান জো রুট। দীর্ঘ দিন পর লাল বলের ক্রিকেটে ফিরে আরও একবার নিজের জাত চেনালেন বেন স্টোকসও। একের পর এক অবনদ্য শট খেলে নিদের অর্ধশতরান পূরণ করেন ব্রিটিশ অলরাউন্ডার। অপরদিকে প্রথমে নিজের ১৫০ রান পূরণ করেন জো রুট। তারপর শততম টেস্টে ডবল সেঞ্চুরি তা স্মরণীর করে রাখলেন ইংল্যান্ড অধিনায়ক।

অবশেষে ১২৪ রানের পার্টনারশিপ গড়ার পর শাহবাজ নাদিমের বলে আউট হন বেন স্টোকস। তিনি করেন ৮২ রান। এরপর অলি পোপকে নিয়েও ৮৬ রানের পার্টনারশিপ করেন রুট।  ৩৪ রান করে করে অশ্বিনের বলে আউট হন পোপ। অবশেষে রুটের ইনিংস শেষ ২১৮ রানে। শাহবাজ নাদিম পান রুটের উইকেট। ইংল্যান্ড ইনিংসে ৩০ রান করেন বাটলার। ইসান্ত শর্মার বলে আউট হন তিনি। এরপর জোফ্রা আর্চার খাতা না খুলেই ইশান্ত শর্মার বলে আউট হন তিনি। দিনের শেষে এখনও ডিক্লেয়ার করেনি ইংল্যান্ড দল। ব্রিটিস লায়ন্সদের স্কোর ৫৫৫ রানে ৮ উইকেট।

দু-দিন ধরে বল ও ফিল্ডিং করে এমনিতেই ক্লান্ত ভারতীয় ক্রিকেটাররা। তারপর পাহাড় প্রমাণ রানের বোঝার চাপে রয়েছে ব্য়াটসম্যানদের উপর। ইংল্যান্ড ইনিংস শেষ করার পর, ভারতীয় দলকে এই ম্যাচ ড্র করার জন্যই লড়াই করতে হবে বলে মনে করেন ক্রিকেট বিশেষজ্ঞরা। রোহিত-পুজারা, কোহলিরা এবার কতটা লড়াই দিতে পারে সেটাই দেখার। ফলে চেন্নাই টেস্টে দ্বিতীয় দিনের শেষে চালকের আসনে জো রুট অ্যান্ড কোং একথা স্বীকার করতেই হচ্ছে।