অস্ট্রেলিয়ায় অভিষেকের পর থেকে খেলেছেন মাত্র ৮টি ইনিংস। দেশের মাটিতে প্রথম টেস্ট খেলতে নেমেই দ্বিশতরান করলেন মায়াঙ্ক আগরওয়াল। সেই রোহিত শর্মাকে সঙ্গে নিয়ে ভেঙে দিলেন ভারত-দক্ষিণ আফ্রিকা টেসল্ট ম্যাচে সর্বোচ্চ ওপেনিং জুটির রেকর্ডও। সব মিলিয়ে টেস্টের দ্বিতীয় দিনেও প্রোটিয়া বোলারদের শাসন করছেন ভারতীয় ব্যাটসম্যানরা।

গত বছর অস্ট্রেলিয়া সফরে এমসিজি-তে টেস্ট অভিষেক হয়েছিবল মায়াঙ্কের। ভারতের ১৩৭ রানের জয়ে প্রথম ইনিংসে তিনি করেছিলেন ৭৬ রান, পরের ইনিংসে ৪২। পরের সিডনি টেস্টেও ঝোড়ো ৭৬ রানের ইনিংস খেলেছিলেন। তবে এরপর ওয়েস্টইন্ডিজ সফরটা সেইরকম ভালো যায়নি মায়াঙ্কের। চার ইনিংসে রান ছিল যথাক্রমে ৫, ১৬, ৫৫ এবং ৪।

তবে শুধু নিজে দ্বিশতরান করা নয়, এদিন তিনি রোহিত শর্মাকে নিয়ে ভেঙে দেন ২২ বছর ও ১৫ বছরের পুরোনো দু-দুটি রেকর্ড। রোহিতের সঙ্গে জুটিতে তিনি ওপেনিং জুটিতে মোট ৩১৭ রান তোলেন। এটি ভারতের ওপেনিং জুটিতে ওঠা তৃতীয় ৩০০ অধিক রান। ২০০৪-০৫ সালে কানপুর টেস্টে বীরেন্দ্র সেওয়াগ ও গৌতম গম্ভীর ২১৮ রান তুলেছিলেন। সেটিই ছিল দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে ভারতীয় ওপেনিং জুটির তোলা সর্বোচ্চ রান। আর ভারত-দক্ষিণ আফ্রিকা টেস্টে ওপেনিং জুটির সেরা রানের রেকর্ডটি এতদিন ছিল অ্যান্ড্রু হাজডসন ও গ্যারি কার্স্টেন-এর। ১৯৯৬ সালে তাঁরা ২৩৬ রান করেছিলেন।

এদিন রোহিত শর্মা ২৪ রানের জন্য দ্বিশতরান হারান। তবে মায়াঙ্ককে আটকানো যায়নি। ২১৫ রান করে তিনি ডিন এলগারের বলে আউট হন। তবে এই ৩১৮ রানের ওপেনিং জুটি ভেঙে যাওয়ার পরই ভারতী মিডল অর্ডারে ধস নেমেছে। পুজারা (৬), কোহলি (২০), রাহানে (১৫), হনুমা (১০) কেউই বড় রান পাননি। বর্তমানে ক্রিজে রয়েছেন জাদেজা (১২) ও ঋদ্ধিমান (৪)। ভারতের রান ৬ উইকেট হারিয়ে ৪৬২।