ব্যাঙ্গালোরের ন্যাশনাল ক্রিকেট একাডেমি (এনসিএ) থেকে ফিটনেসের দিক দিয়ে সবুজ সংকেত পেয়ে গেলেন ভারতীয় টেস্ট দলের নিয়মিত বোলার ইশান্ত শর্মা। গোড়ালির চোটে কাবু ছিলেন তিনি। কিন্তু এখন এনসিএ থেকে ছাড়পত্র পাওয়ায় অংশ নিতে পারবেন নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে ২১শে ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু হতে চলা টেস্ট সিরিজে। এই খবর নিঃসন্দেহে ভারতীয় দলে বয়ে আনবে স্বস্তির হাওয়া। যদিও ভারতীয় দলে বোলিং অপশনের অভাব নেই এই মুহুর্তে। তাই ইশান্ত নিউজিল্যান্ডের মাটিতে টেস্ট সিরিজ খেলতে নামবেন কিনা সেই সিদ্ধান্ত আপাতত নির্বাচকদের হাতে। 

ফিরোজ শা কোটলায় দিল্লির হয়ে রঞ্জি ম্যাচ খেলতে নেমে চোট পেয়েছিলেন ৩১ বছর বয়সী পেসার। ২১শে জানুয়ারি বিদর্ভ-র বিরুদ্ধে দিল্লির হয়ে মাঠে নেমেছিলেন তিনি। সেই ম্যাচেই বোলিং করার সময় গোড়ালি মচকে যায় তার। এম আর রিপোর্টে তার চোটকে গ্রেড থ্রি ইনজুরি ঘোষণা করা হয় এবং ৬ সপ্তাহের জন্য বিশ্রাম নিতে বলা হয়। 

ইশান্ত জানিয়েছেন, সেই সময় তিনি চোটের অবস্থা দেখে খুব ভেঙে পড়েছিলেন। সেই কঠিন সময়ে সর্বক্ষণ তার পাশে ছিল এনসিএ ফিজিও আশিষ কৌশিক। চোটমুক্ত হওয়ার পর কৌশিককে ধন্যবাদ জানিয়ে টুইটও করেছেন ইশান্ত। তার পরামর্শ পেয়েই কয়েকদিন পরে চোটের জন্য আবারও এমআরআই করেন ইশান্ত। 

আর মাত্র ৪টি টেস্ট ম্যাচ খেললেই ভারতীয়দের মধ্যে দ্বিতীয় পেসার হিসেবে ১০০ টি টেস্ট ম্যাচ খেলবেন ইশান্ত। তার আগে ভারতীয়দের মধ্যে একমাত্র কপিল দেবের এই কৃতিত্ব আছে। ভারতের সফল পেস আক্রমণে মহম্মদ সামি, উমেশ যাদব, যশপ্রীত বুমরার সাথে সাথে তিনিও একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ। এখন দেখার নির্বাচকরা কি সিদ্বান্ত নেন ইশান্তকে নিয়ে।