ওয়েস্টইন্ডিজ সফরই শেষ। তারপরই ভারতীয় ক্রিকেট দলের কোচিং স্টাফরা বদলে যেতে পারেন। ইতিমধ্যেই বোর্ডের তরফ থেকে নতুন করে আবেদনপত্র নেওয়া হয়েছে। তারমধ্য়ে সবচেয়ে হাইপ্রোফাইল যে নামটি শোনা গিয়েছে, তা হল জন্টি রোডস। নিজেই জানালেন ভারতের ফিল্ডিং কোচ হতে তিনি দারুণ আগ্রহী।

এমনিতেই ভারতের প্রতি জন্টির ভালবাসা রয়েছে। তাঁর দুই মেয়েরই জন্ম হয়েছে ভারতে থাকাকালীনই। একজনের নাম রাখা হয়েছে ইন্ডিয়া। এর আগে ৯ মরসুম আইপিএল-এ মুম্বই ইন্ডিয়ান্স দলের ফিল্ডিং কোচের দায়িত্ব সামলেছেন তিনি।

এক সাক্ষাতকারে জন্টি জানিয়েছেন, গত পাঁচবছরে ভারতীয় দলের ফিল্ডিংয়ে দারুণ উন্নতি হয়েছে। নেক বেশি অ্যাথলেটিক হয়ে উঠেছেন ক্রিকেটাররা। আর তাতে আরও কিছু উপাদান তিনি য়োগ করতে পারবেন বলে মনে করছেন ফিল্ডিং-এর জন্যই বিশ্ববন্দিত এই প্রাক্তন প্রোটিয়া ক্রিকেটার।

তিনি আরও জানিয়েছেন, কোচিং করতে তিনি খুবই ভালবাসে। আর ভারতীয় দল এই মুহূর্তে বিশ্বেরপ সবচেয়ে ব্যস্ততম দল। কাজেই ভারতের ফিল্ডিং কোচ হতে পারলে কোচিং-এও তাঁর অনেকটা সময় কাটবে।

সেই সঙ্গে ভারতীয় দলের মানসিকতায় একটি বড় পরিবর্তন করতে চান তিনি। জন্টি জানিয়েছেন, ভারতে থাকার সময়ে তিনি লক্ষ্য করেছেন ভারতীয়রা ঝুঁকি নিতেখুব একটা চান না। বাবা-মায়েরাও চান না তাঁদের সন্তানরা ঝুঁকি নিক। ভারতীয় দল ক্যচ ফেলার সংখ্যা উল্লেখয়োগ্য ভাবে কমাতে পারলেও এই ঝুঁকি না নেওয়ার মানসিকতা থেকেই হাফচান্স গুলিকে এখনও ক্যাচ পরিণত করার বিষয়ে পিছিয়ে আছেন। এই দিকটি পাল্টে দিতে চান ক্রিকেট বিশ্বের সর্বকালের সেরা ফিল্ডার।