দল সুপার ওভারে হারলেও, আইপিএলের অভিষেক ম্য়াচেই দুরন্ত পারফরমেন্স করলেন কিংস ইলেভেন পঞ্জাবের তরুম লেগ স্পিনার রবি বিষ্ণোই। তার ভেলকির জাদু নজর কেড়েছে সকলের। অনুর্ধ্ব ১৯ বিশ্বকাপে ভারতীয় দলে সুযোগ পেয়েছিলেন রবি বিষ্ণোই। গোটা বিশ্বকাপে তার নজরকাডা পারফরমেন্স করেছিলেন তিনি। তারপরই ভারতীয় ক্রিকেটে শিরোনামে চলে আসে এই তরুণ স্পিনার। অনুর্ধ্ব ১৯ বিশ্বকাপে দুরন্ত পারফরমেন্সের সৌজন্যে আইপিএল নিলামে তাকে ২ কোটি টাকায় দলে নেয় কিংস ইলেভেন পঞ্জাব। 

আইপিএল নিলামে দল পেলেও, তাকে প্রথম এগারোয় রাখা হবে কিনা তা নিয়ে একটা সংশয় ছিল। কিন্তু পঞ্জাব দল কর্তৃপক্ষ ও কোচ অনিল কুম্বলে ভরসা দেখান রবির উপর। প্রথম ম্যাচেই তাকে দলে সুযোগ দেওয়া হয়। আর দল যে তার উপর আস্থা রেখে ভুল করেনি, তা পারফর্ম করে প্রমাণ করে দেন রবি বিষ্ণোই। দিল্লির মত কঠিন প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে বল করে ৪ ওভারে মাত্র ২২ রান দেন তিনি। সঙ্গে নেন একটি উইকেও। প্রথম ম্যাচে ভাল পারফর্ম করেও দল জেতা ম্যাচ হেরে যাওয়ায় কিছুটা হতাশ রবি বিষ্ণোই।

 

 

দিল্লির বিরুদ্ধে ম্য়াচে একটু সবিধাজনক জায়গাতেই বলে এসেছিলেন রবি। দিল্লির ৩ উইকেট পড়ে যাওয়ার পর তাকে বলে আনেন অধিনায়ক কেএল রাহুল। যদিও সেই সময় ক্রিজে ছিলেন ভারতীয় দলের দুই তারকা ব্যাটসম্যান শ্রেয়স আইয়র ও ঋষভ পন্থ। কিন্তু রবি বিষ্ণোইকে সামলাতে যথেষ্ট বেগ পেতে হয় দুই তারকা ব্যাটসম্যানকে। এরই ফাঁকে রবিকে হিট করতে গিয়ে বোল্ড আউট হন ঋষভ পন্থ। আইপিএলের অভিষেকেই উইকেট পেয়ে রবির উচ্ছাস ছিল চোখে পড়ে মত। ৪ ওভারে ২২ মাত্র ২২ রান দিয়ে নিজের স্পেল শেষ করেন রবি। তাকে উঠে দাঁড়িয়ে হাততালি দেন কোচ অনিল কুম্বলে। শুধু কুম্বলেই নয়, রবি বিষ্ণোইয়ের বলের প্রশাংসা করেছেন সকলেই। আগামী দিনের ভারতীয় তারকা হওয়ার সবরকম গুন রবি বিষ্ণোইয়ের মধ্যে রয়েছে বলে মনে করেন ক্রিকেট বিশেষজ্ঞরা। 

ক্রিকেটার হওয়ার জন্য একসময় ক্রিকেট অ্যাকাডেমিতেই শ্রমিকের কাজ করেছিলেন রবি বিষ্ণোই। তার বয়স তখন মাত্র ১২। পরে সেই ক্রিকেট অ্যাকাডেমিতেই খেলার সুযোগ পান রাজস্থান থেকে উঠে আসা এই তরুণ স্পিনার। পরবর্তী কালে নানা স্তরে ক্রিকেট খেলে নিজের জাত চেনাতে শুরু করেন রবি। তারপর আর পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি। অনুর্ধ্ব ১৯ বিশ্বকাপের ভারতীয় দলে সুযোগ রবির জীবনটাই পুরো পাল্টে দেয়। এক সময় ক্রিকেটার হওয়ার জন্য শ্রমিকের কাজ করেছিলেন যে রবি, সেই এখন আইপিএলের মত মেগা মঞ্চের তারকা হয়ে ওঠায় খুশি ও গর্বিত গোটা দেশবাসী।