সিডনিতে চলছে তৃতীয় টেস্ট। দ্বিতীয় দিনের শেষে স্টিভ স্মিথের লড়াকু সেঞ্চুরির সৌজন্যে ভারতকে চ্যালেঞ্জিং স্কোরের লক্ষ্য দিয়েছে অস্ট্রেলিয়া। দ্বিতীয় দিনের শেষে ভারতের স্কোর ৯৬ রানে ২ উইকেট। হাড্ডাহাড্ডি পরিস্থিতিতে রয়েছে সিডনির লড়াই। শেষ টেস্টেই যে সিরিজের ভাগ্য নির্ধারণ হবে তাও একপ্রকার নিশ্চিৎ। ব্রিসবেনে হওয়ার কথা বর্ডার-গাভাসকর ট্রফির চতুর্থ টেস্ট। কিন্তু তার আগেই চতুর্থ টেস্ট ঘিরে তৈরি হল অনিশ্চিয়তা। কারণ সেই করোনা ভাইরাস।

ব্রিসব্রেনে নতুম করে করোনার প্রকোপ দেখা দিয়েছে। লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে মারণ ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা। পরিস্থিতি সামাল দিতে তৎপর ছিল প্রশাসন। কিন্তু  ব্রিসবেনের  এক হোটেল কর্মী করোনায় আক্রান্ত। তাঁর শরীরে মিলেছে করোনাভাইরাসের নতুন স্ট্রেন। তারপরই আতঙ্ক আরও বেড়ে গিয়েছে। তড়িঘড়ি ব্রিসবেনে তিন দিনের কঠোর লকডাউন ঘোষণা কুইন্সল্যান্ড সরকার। পরিস্থিতি খতিয়ে দেখে লকডাউনের মেয়াদ বাড়ানো হতে পারে।  ফলে চতুর্থ টেস্টের আগে ব্রিসবেনে লকডাউন, প্রশ্ন তুলে দিয়েছে ম্যাচের ভবিষ্যৎ নিয়ে।

ব্রিসবেনে যদি আগামি কয়েক দিনের মধ্যে পরিস্থিতি ঠিক না হয়, লকডাউনের মেয়াদ বাড়ে সেক্ষেত্রে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়াকে নিজের সিদ্ধান্ত বদলের পে হাঁটতে হতে পারে। ব্রিসবেনের পরিবর্তে অন্য মাঠে ম্যাচের আয়োজন করতে  হতে পারে। তবে এখনও ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া আশা করছে ম্যাচ অয়োজনের আগে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়ে যাবে। তবে যেভাবে করোনা সংক্রমণ বাড়ছে তাতে আতঙ্ক বাড়ছে সকলের মধ্যেই।