ক্রিকেটের ঈশ্বর, রাজ্যসভার প্রাক্তন সাংসদ। কিন্তু নিজের রাজ্যেই আর আগের মতো 'সুরক্ষিত' নন স্বয়ং সচিন তেন্ডুলকর! মাস্টার ব্লাস্টারের নিরাপত্তা কমিয়ে দিল মহারাষ্ট্র সরকার। নিরাপত্তা বাড়ল মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরের ছেলের আদিত্যের। এখন থেকে জেড ক্যাটেগরির নিরাপত্তা পাবেন প্রথমবারের এই বিধায়ক।  বিতর্ক তুঙ্গে মারাঠাভূমিতে। সরকারের সিদ্ধান্ত নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে বিজেপি। 

সর্বক্ষণ সঙ্গে থাকতেন একজন সশস্ত্র পুলিশকর্মী। আর যখন বাড়ির বাইরে বেরোতেন, তখন পুলিশের এসকর্টের ব্যবস্থা থাকত। শচিনকে এতদিন এক্স ক্যাটেগরির নিরাপত্তা দিত মহারাষ্ট্র সরকার।  রাজ্যে পালাবদলের পর ৪৬ বছর বয়সী এই প্রাক্তন ক্রিকেটারের নিরাপত্তা কিন্তু একধাক্কায় অনেকটাই কমল।  জানা গিয়েছেন, এখন থেকে শচিনের নিরাপত্তায় সর্বক্ষণের জন্য মোতায়েন থাকবেন স্রেফ একজন পুলিশ।  আর বাড়ি বাইরে বেরোলেও তাঁর সঙ্গে ছায়ার মতো লেগে থাকবেন ওই পুলিশকর্মীই।  এদিকে আবার মুম্বইয়ের ওরলি থেকে প্রথমবার বিধায়ক নির্বাচিত হয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরে-এর ছেলে আদিত্য। তাঁকে জেড ক্যাটেগরির সর্বোচ্চ নিরাপত্তা দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন মহারাষ্ট্র সরকার।  কিন্তু নিরাপত্তা ক্ষেত্রে কেন এই বৈষম্য? প্রশাসনের সাফাই, স্রেফ সচিনের নিরাপত্তাই কমানো হয়নি, মহারাষ্ট্রে ৯০ বিশিষ্ট ব্যক্তির সুরক্ষা ব্যবস্থা খতিয়ে দেখে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। 

আরও পড়ুন: তিন দশকের বর্ণময় কেরিয়ারে ইতি, বড়দিনে অবসরের সিদ্ধান্ত ঘোষণা লিয়েন্ডারের

স্রেফ আদিত্য ঠাকরেই নন, নিরাপত্তা বাড়ানো হয়েছে সমাজকর্মী আন্না হাজারে-এরও।  ওয়াই ক্যাটেগরির বদলে এখন থেকে জেড ক্যাটেগরির নিরাপত্তা পাবেন তিনি।  এনসিপি সুপ্রিমো শরদ পাওয়া আগে যেমন জেড ক্যাটেগরির নিরাপত্তা পেতেন, এখনও তেমনই পাবেন। জেড ক্যাটেগরির নিরাপত্তা পাবেন তাঁর ভাইপো ও মহারাষ্ট্রের হবু উপমুখ্যমন্ত্রী অজিত পাওয়ারও।  কিন্তু মহারাষ্ট্রে পূর্বতন বিজেপি মন্ত্রীদের নিরাপত্তাও কি আগের মতো থাকবে? প্রশ্ন রাজনৈতিক মহলের।