মাঠে তাকে মাথা গরম করতে এর আগেও দেখা গিয়েছে। যার কারনে বিতর্কও কম হয়নি। কিন্তু অধিনায়কের সিদ্ধান্ত পছন্দ না হওয়ায় ব্য়াট ছুড়ে মারার মত ঘটনা এর আগে কোনও দিন ঘটাননে অস্ট্রেলিয়ার তারকা পেস বোলার মিচেল স্টার্ক। হ্যাঁ মিচেল স্টার্কের এই কাণ্ডের ভিডিও বর্তমানে ভাইরাল নেট দিনিয়ায়। যার জন্য সমালোচনার মুখেও পড়তে হচ্ছে অজি তারকা পেসারকে। স্টার্ক এই ঘটনা ঘটিয়েছেন অস্ট্রেলিার ঘরোয়া ক্রিকেটের খেলায়। 

অ্যাডিলেডে শেফিল্ড শিল্ড ট্রফির ম্য়াচ চলছিল নিউ সাউথ ওয়েলস  বনাম তাসমেনিয়ার। নিউ সাউথ ওয়েলসে খেলেন নিচেল স্টার্ক। তাসমেনিয়ার বিরুদ্ধে প্রথম ইনিংসে মাত্র ৬৪ রানে শেষে হয়ে যায় নিউ সাউথ ওয়েলসের ছবি। ব্যাট করতে নেমে প্রথম ইনিংসে ২৩৯ রান করে তাসমেনিয়া। ১৭৫ রানের লিড পায় তারা। দ্বিতীয় ইনিংসে ঘুরে দাঁড়ায় অধিনায়ক পিটার নেভিলের নিউ সাউথ ওয়েলস। নিক লারকিন, মোসেস হেনরিকস ও সিন অ্যাবটের সেঞ্চুরির সৌজন্য ৫২২ রান করে নিউ সাউথ ওয়েলস। কিন্তু দ্বিতীয় ইনিংসে ব্য়াট করার সময় অ্যাবটের সেঞ্চুরি হতেই ইনিংস ডিক্লেয়ার করেন পিটার নেভিল। সেই সময় ক্রিজে ৮৬ রানে অপরাজিত ছিলেন স্টার্ক। সেঞ্চুরির দোরগোড়ায় গিয়ে সেঞ্চুরির করার সুযোগ না পেয়েও বেজায় ক্ষেপে যান স্টার্ক। 

ইনিংস ডিক্লেয়ারের পর বাইন্ডারি লাইনের বাইরে গিয়ে নিজের ব্যাট ছুড়ে মারেন তিনি। স্টার্কের এহেন আচরণের ভিডিও মুহূর্তের মধ্যে ভাইরাল হয়ে যায় নেট দুনিয়ায়। পিটার নেবিল দলের বোলারদের ম্য়াচ জেতার জন্য বেশি বোলিংয়ের সময় দেওয়ার জন্যই এই সিদ্ধান্ত নেন। অপরদিকে, শুধু মাত্র ফাস্ট ক্লাস ক্রিকেট নয়, য়ে কোনও ধরনের প্রফেশনাল ক্রিকেটে নিজের প্রথম সেঞ্চুরি হাতছাড়া হওয়ায় রেগে যান স্টার্ক। কিন্তু অধিনায়কের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে স্টার্কের ব্যাট ছুড়ে ফেলার ঘটনার নিন্দায় সরব হয়েছে ক্রিকেট বিশ্ব।