নিউজিল্যাড সফরে গিয়ে খারাপ সময় যেন কিছুতেই পিছু ছাড়ছে পাকিস্তান ক্রিকেট দলের। একের পর এক দলের প্লেয়াররা আক্রান্ত হচ্ছেন করোনা ভাইরাসে। এর আগে দলের ৬ জন ক্রিকেটার করোনা আক্রান্ত হওয়ায় চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়েছিল। এবার দীর্ঘায়িত হল সেই তালিকা। আরও এক পাক ক্রিকেটার আক্রান্ত হলেন বিশ্ব মহামারী ভাইরাসে। পাকিস্তান ক্রিকেট দলে লাগাতার কোভিড ১৯-এর থাবার কারণে প্রশ্নের চিহ্নের মুখে পড়ে গিয়েছে  নিউজিল্যান্ডের সঙ্গে সিরিজের ভবিষ্যৎ।

দলে লাগাতার করোনার হানার ফলে পাকিস্তানের পুরো ক্রিকেট দলকে হোটেল বন্দি করা হয়েছে। সপ্তম প্লেয়ারের আক্রান্তের খবরে সেই নিয়ম আরও কড়াকড়ি করেছে নিউজিল্যান্ড প্রশাসন। একই সঙ্গে পাকিস্তান ক্রিকেট দলের আচরণে  অসন্তুষ্ট কিউই প্রশাসন। কারণ ইতিমধ্যেই নিউজিল্যান্ড বোর্ডের তরফে জানানো হয়েছে, অন্তত ৩-৪ বার পাকিস্তান ক্রিকেটারদের জৈব সুরক্ষা বলয়ের নিয়ম ভাঙতে দেখা গিয়েছে। তাই এবার পাক দলকে কার্যত চরম সতর্কতা দেওয়া হয়েছে। বলা হয়েছে, আর এক বার নিয়ম ভাঙলেই দেশে ফেরত পাঠাতে হবে পাক ক্রিকেটারদের।

প্রসঙ্গত, নিউজিল্যান্ডের যাওয়ার আগে প্রত্যেক পাক ক্রিকেটারের ৪ বার করে করোনা পরীক্ষা করা হয়েছে বলে জানানো হয়েছে। কিন্তু নিউজিল্যান্ডে গিয়ে একাধিক পাক ক্রিকেটারের করোনা রিপোর্ট পজেটিভ আসে। এমনকি ২ পাক ক্রিকেটারের আগে থেকেই করোনা সংক্রমণ ছিল বলে জানিয়েছে নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ড। ফলে পাক বোর্ডের উপরও কিছুই ক্ষুব্ধ কিউই ক্রিকেট বোর্ড। োমবার পুোর পাকিস্তান দলের ফের করোনৈ পরীক্ষা করা হবে। কিন্তু দলের আচরমে ক্রমশ চাপ বাড়ছে পাক ক্রিকেট বোর্ডের উপরও।