পাকিস্তানের অধিনায়কের পদ থেকে এবার সরিয়ে দেওয়া হতে পারে সরফরাজ আহমেদকে। একদিনের বিশ্বকাপে পাকিস্তানের ব্যর্থতার পর থেকেই চলছে পাক অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদকে নিয়ে জল্পনা। পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের এক সংখ্যক কর্তা থেকে শুরু করে নির্বাচকরা অধিনায়ক হিসাবে দেখতে চাইছেন না সরফরাজকে। এই বিষয় নিয়ে মুখ খুলতে দেখা গিয়েছে প্রাক্তন পাক ক্রিকেটারদেরও। ব্যাট হাতে খারাপ পারফরম্যান্সের পাশাপাশি দলকে চালনা করতেও ব্যর্থ হচ্ছেন এই পাক ক্রিকেটার। এবার সেই জায়গায় দাঁড়িয়ে খুব শীঘ্রই দলের নেতৃত্ব থেকে সরিয়ে ফেলা হতে পারে সরফরাজকে এমনটাই খবর পাক বোর্ড সূত্রে।

আরও পড়ুন, মেয়ের নাচের ভিডিও পোস্ট করে ইনস্টাগ্রামে ঝড় তুললেন মহম্মদ শামি

বোর্ড সূত্রে খবর, বিশ্বকাপের পর শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধেও ব্যর্থ সরফরাজ। অধিনায়ক হিসাবে সেভাবে নজর কাড়তে দেখা যায়নি এই ক্রিকেটারকে। আর সেই সঙ্গে টেস্ট দলের অধিনায়কত্বও তাঁকে ছাড়তে বলা হয়েছে। তবে এখনও পর্যন্ত এই বিষয় নিয়ে কোনও রকম চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেননি বোর্ডের শীর্ষ কর্তারা। তবে বোর্ডের মিটিংয়ে এই সরফরাজকে সরানো নিয়ে আলোচনা হয়েছে বলে খবর পাক বোর্ড সূত্রে।

আরও পড়ুন, ভারতীয় দলের অধিনায়ক, এই তকমাই আমার সফল ব্যাটিংয়ের ইউএসপি বলছেন বিরাট

প্রাক্তন পাক ক্রিকেটার জাহির আব্বাস, মোহসিন খান ও শাহিদ আফ্রিদিদের মতেও ডাহা ফেল সরফরাজ। এমনকি বিশ্বকাপে অন্যতম আনফিট ক্রিকেটার হিসাবেও প্রমাণিত তিনি। তাই এবার আগামী দিনে পাক দলের অধিনায়কত্ব তাঁর হাতে থাকবে সেই নিয়ে শুরু হয়ে গিয়েছে জল্পনা। তবে আগামী সপ্তাহে সম্পূর্ণটা জানিয়ে দেওয়া হবে পাকিস্তান বোর্ডের তরফ থেকে। আগামী টি২০ বিশ্বকাপ পর্যন্ত তাঁর অধিনায়ক হিসাবে থাকার কথা থাকলেও, তাঁর আগেই তাঁর পদ ছিনিয়ে নিতে পারেন নির্বাচকরা।