আইপিএল শুরুব হতে বাকি দু সপ্তাহ সময়। আরব আমিরশাহিতে অনুশীলনে নেমে পড়েছে বেশিরভাগ দল। প্রতিযোগিতার প্রস্তুতিও জোরকদমে চালাচ্ছে আরব আমিরশাহির প্রশাসন ও এমিরেটট ক্রিকেট বোর্ড। কিন্তু আইপিএলের ক্রীড়া সূচি। তা তো এখনও প্রকাশ হয়নি। প্রতিযোগিতা শুরু হতে বাকি হাতে গোনা কয়েকটা দিন। আর কবে পূর্ণাঙ্গ ক্রীড়াসূচি প্রকাশ করবে বিসিসিআই তা নিয়ে উঠছে শুরু করেছে প্রশ্ন। এর আগে আইপিএলের গভর্নিং কাউন্সিলের চেয়ারম্যান ব্রিজেশ প্যাচেল বলেছিলেন অগাস্টের শেষ সপ্তাহের মধ্যে প্রকাশিত হলে সূচি। কিন্তু পূরণ হয়নি সেই কথাও। ফলে দল্পনা বাডছে নানা মহলে।

আরও পড়ুনঃ৪০ ডিগ্রি তাপমাত্রায় বরফ গলা জলে স্নান, বাথ টব থেক ছবি শেয়ার বিরাটের

অবশেষে সব প্রশ্নের উত্তর দিতে ফের ময়দানে নামতেই হল বিসিসিআই প্রেসিডেন্টে সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। নিজস্ব ভঙ্গিমাতে আত্মবিশ্বাসের সঙ্গেই করলেন ড্যামেজ কন্ট্রোল। আইপিএলের চূড়ান্ত ক্রীড়া সূচি নিয়ে যাবতীয় প্রশ্নের উত্তরে সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় জানান,'দিন দুয়েকের মধ্যেই ক্রীড়া সূচি প্রকাশ করে দেওয়া হবে। কিছু সমস্যা ছিল সেগুলো মিটে গিয়েছে। আশা করছি দু'দিনের মধ্যেই সূচী চলে আসবে। বৃহস্পতিবারের মধ্যে সমস্ত সমস্যার সমাধান হয়ে যাবে। শুক্রবার অর্থাৎ ৪ সেপ্টেম্বরে আশা করছি বোর্ড আইপিএলের সূচি প্রকাশ করে দেবে। সবদিক বিচার বিবেচনা করেই প্রকাশিত করা হবে ক্রীড়াসূচি।'

আরও পড়ুনঃপুত্র না কন্যা, কে আসতে চলেছে বিরুষ্কার জীবনে, ভবিষ্যদ্বাণী বিখ্যাত জ্যোতিষীর

আরও পড়ুনঃএই ক্রিকেটাররা ভেঙেছিলেন তাদের বন্ধুর ঘর, বিয়ে করেছিলেন 'বউদিকে'

আসলে দেশের মাটিতে করোনা ভাইরাস সংক্রমণের উদ্বেগ জনক পরিস্থিতির কারণেউ বিদেশের মাটিতে আইপিএল করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল বিসিসিআই। সুরক্ষিত জায়গা হিসেবে বেছে নেওয়া আরব আমিরশাহিকে। সবকিছুই ঠিকঠাক পরিকল্পনা মাফিকই চলছিল কিন্তু গত ২৮ সেপ্টেম্বর আইপিএলে থাবা বসায় মারণ ভাইরাস। করোনা আক্রান্ত হন চেন্নাই সুপার কিংসের দুই ক্রিকেটার সহ ১৩ জন। বোর্ডের মেডিকেল টিমের সদস্য কোভিড পজিটিভ। করোনাভাইরাসের গ্রাফ বর্তমানে ঊর্ধ্বমুখী সংযুক্ত আরব আমিরশাহিতে। এছাড়াও দুবাই কিংবা শারজা থেকে যতবার ক্রিকেটাররা আবু ধাবিতে ঢুকতে যাবেন, ততবারই তাঁদের করোনা পরীক্ষা দিতে হবে। যেটা দুবাই কিংবা শারজার ক্ষেত্রে নয়। আবু ধাবির নিয়মকানুন দেখে বোর্ড  কিছু ম্যাচ বদলানোর কথা ভাবে। এইসব কিছুর জন্য আইপিএলের সূচি প্রকাশে দেরি হওয়ার অন্যতম কারণ বলে জানা গিয়েছে বিসিসিআই সূত্রে। কিন্তু অবশেষে সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় কথা দেওয়ায় সব দল্পনার অবসান ঘটল বলেই মনে করা হচ্ছে।