লোধা কমিশনের নিয়ম অনুযায়ী বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট পদে সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের মেয়াদ শেষ হয়েছে অনেক দিন আগেই। একইসঙ্গে শেষ হয়েসচিব জয় শাহের মেয়াদও। কিন্তু বসিসিআই কর্তারা সৌরভ ও তার টিমের মেয়াদ বাড়ানোর জন্য সুপ্রিম কোর্টে আবেদন করেছেন। সেই মামলা এখনও শীর্ষ আদালতে বিচারাধীন। সৌরভও জানিয়ে দিয়েছিলেন আদালত না চাইলে এক মুহূর্তও বোর্ড সভাপতির পদে থাকতে চাইবেন না তিনি। এরইমধ্যে পরোক্ষভাবে আরও বাড়ল বিসিসআইয়ের মসনদে সৌরভ ও জয় শাহদের মেয়াদ।

আরও পড়ুনঃমুম্বই বধের ছক প্রস্তুত করছে কেকেআর, 'হিটম্যানের' জন্য ফাঁদ পাতছে নাইট শিবির, জানুন কীভাবে

শুক্রবার ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ড অর্থাৎ বিসিসিআইয়ের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, করোনা ভাইরাস মহামারীর কারণে স্থগিত করা হয়ে ৩০ সেপ্টেম্বর আয়োজিত বোর্ডের বার্ষিক সভা। পরবর্তী সভার দিনক্ষণ নিয়েও এখনই চূড়ান্ত কিছুই জানায়নি বিসিসিআই। বোর্ডের তরফে জানানো হয়েছে পরবর্তী সভার তারিখ পরে জানিয়ে দেওয়া হবে। কিন্তু অন্যান্য সভার মত অনলাইনে বার্ষিক সাধারণ সভা অনলাইনে করা সম্ভব নয়, তা তা স্থগিত ত করা হল। সাধারণ সভা না হওয়ার অর্থ, নির্বাচন নিয়ে কোনও আলোচনাই হবে না। যার ফলে পরোক্ষভাবে বোর্ড সভাপতি পদে আরও অনেকটাই বাড়ল সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় ও তার টিমের মেয়াদ। 

আরও পড়ুনঃগীতার পোস্টার দেখেই হয়েছিলেন 'দিওয়ানা', বিয়ে করে নিয়েছিলেন দম, জানুন ভাজ্জির মজাদার প্রেম কাহিনি

আরও পড়ুনঃপর্ণস্টারের প্রেমে পড়েছিলেন এই মহিলা টেনিস তারকা, তারপর যা হয়েছিল

 তামিলনাড়ু সোসাইটি রেজিস্ট্রেশন অ্যাক্টে নথিভুক্ত ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ড। আর সেই আিন অনুযায়ী ৩০ সেপ্টেম্বরের মধ্যে বার্ষিক সভা করে ফেলতে হবে বিসিসিআইকে। কিন্তু করোনা কারণে এবার তা তিন মাস পর্যন্ত পিছিয়ে দেওয়ার অনুমতি মিলেছে। ফলে একদিকে ডিসেম্বরের আগে বোর্ডের সাধারণ সভা যে হচ্ছে তা একপ্রকার নিশ্চিৎ। অপরদিকে কুলিং অফের মেয়াদ বৃদ্ধির মামলাটিও সুপ্রিম কোর্টের বিচারাধীন। দুই মিলিয়ে আর বেশ কিছু সময় ভারতীয় ক্রিকেটের মসনদে বিরাজমান থাকবেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় অ্যান্ড কোং।