সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের জীবনে গ্রেগ চ্যাপেল অধ্যায় না এলে তার কেরিয়ার যে আরও দীর্ঘায়িত ও উজ্জ্বল হত এই কথা আমাদের সকলরেই জানা। ভারতীয় ক্রিকেটের উন্নতির জন্য কোচ হিসেবে গ্রেগ চ্যাপেলকে পছন্দ করেছিলেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্য়ায়ই। কিন্ত সেই গ্রেগের চক্রান্তের শিকার হয়েছিলেন প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক। ২০০৫ সালে অধিনায়কত্ব হারানোর পাশাপাশি দল থেকেও বাদ পড়তে হয় সৌরভ গঙ্গোপাধ্য়ায়কে। তারপর দলে ফেরার জন্য যে প্রাণপণ লড়াই চালিয়েছিলেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় তা ইতিহাস হয়ে লেখা থাকবে ভারতীয় তথা বিশ্ব ক্রিকেটে। দলে ফিরে ফের ব্যাট হাতে নিজেকে প্রমাণ করেছিলেন বেহালার বাঁহাতি।

আরও পড়ুনঃতৃণমূলের চাপ ও ভয়েই দল ছেড়েছেন মেহতাব হোসেন, দাবি বিজেপি নেতৃত্বের

ফের একবার টিম ইন্ডিয়ার প্রাক্তন কোচ গ্রেগ চ্যাপেলের বিরুদ্ধে মুখ খুললেন প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক সৌরভ গাঙ্গুলি। ২০০৫ সালে টিম ইন্ডিয়া থেকে বাদ পড়ার পর কীভাবে নিজের মধ্যে আত্মবিশ্বাস বজায় রেখেছিলেন সে কথাই জানিয়েছেন কামব্যাক কিং বর্তমান বিসিসিআই সভাপতি। বাদ পড়ে হতাশ হয়েছিলেন। তবে আত্মবিশ্বাস হারাননি। নিজেকে উদ্দীপ্ত রেখেছিলেন এই বলে যে, ওয়াসিম আক্রম, গ্লেন ম্যাকগ্রা, শোয়েব আখতারদের বিরুদ্ধে গত দশ বছর ধরে রান করেছেন তিনি, কোচ নন। সুতরাং সুযোগ পেলে আবার নিশ্চিতভাবেই সেটা করে দেখাতে পারবেন। আর সেটা করেও দেখিয়েছিলেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়।

আরও পড়ুনঃহঠাৎ কেনও কার্লোস ব্রাথওয়েটকে ব্যালন ডি'অর দেওয়ার দাবি জানাল আইসিসি

আরও পড়ুনঃচিনে নিন বিশ্বের সব থেকে সেক্সিয়েস্ট ফুটবল রেফারিদের, যাদের রূপ ঝড় তোলে হৃদয়ে

এক সাক্ষাৎকারে জীবনের সেই কঠিন সংগ্রামের কথা বলতে গিয়ে বর্তমান বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় বলেছেন,'হ্যাঁ, বাদ পড়ে আমি ভীষণ হতাশ হয়েছিলাম। তবে এক মুহূর্তের জন্যও আমি আত্মিবশ্বাস হারাইনি। আমি জানতাম, সুযোগ পেলে আবার রান করে দেব। আমার কোচ কখনও ওয়াসিম, ম্যাকগ্রা, শোয়েবদের সামলায়নি। আমি খেলেছি এবং ওদের বিরুদ্ধে রান করেছি। যদি গত ১০ বছরে ওদের বিরুদ্ধে সফল হতে পারি, তবে সুযোগ পেলে আবার সেটা করে দেখাতে পারব।' পাশাপাশি তাক বাদ দেওয়ার জন্য যে শুধু গ্রেগ চ্য়াপেল নয় গোটা সিস্টেম দায়ি ছিল সেই কথা আগেই জানিয়েছিলেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়।