ধোনির পথ  অনুসরন করলেন  তার দীর্ঘ দিনের জাতীয় দলের ও চেন্নাই সুপার কিংসের সতীর্থ সুরেশ রায়নাও। আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসর ঘোষণা করলেন এই বাঁ হাতি তারকা ব্যাটসম্যান। সোশ্যাল মিডিয়ায় নিজের অবসরের সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছেন সুরেশ রায়না। ধোনি সহল চেন্নাই সুপা কিংসের বাকি সতীর্থদের সঙ্গে আড্ডা দেওয়ার একটি ছবি শেয়ার করে রায়না লিখেছেন,'আপনার সঙ্গে খেলা একটা সুন্দর অভিজ্ঞতা ছাড়া আর কিছুই নয়। আমি হৃদয় থেকে গর্বিত এই যাত্রায় আপনাকে সঙ্গ দিতে পেরে। ধন্যবাদ ভারত। জয় হিন্দ।' 

আরও পড়ুনঃআন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসর ঘোষণা মহেন্দ্র সিং ধোনির

২০০৫ সালে ভারতীয় দলে অভিষেক ঘটেছিল রায়নার। গ্রেগ চ্যাপেলের জমানায় সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের বদলি হিসাবে দলে এসেছিলেন তিনি। তারপর থেকে ধীরে মিডল অর্ডারে নিজের জায়গা পাকা করেন রায়না। এরপরে একসময় মিডল অর্ডারে ভারতীয় দলের এক নম্বর ভরসা হয়ে ওঠেন। সিএসকে থেকে জাতীয় দলে ধোনির ভরসার জায়গা হয়ে উঠেছিলেন নিজের দক্ষতায়। রায়না তার কেরিয়ারে ১৯টি টেস্ট ম্যাচ ও ২২৬টি ওয়ানডে খেলেন তিনি। ওয়ানডে-তে রায়না করেন ৫৬১৫ রান। টেস্ট ক্রিকেটে তিনি অবশ্য সে ভাবে সফল নন। ১৯টি টেস্ট থেকে তাঁর সংগ্রহ ৭৬৮ রান। জাতীয় দলের জার্সিতে ৭৮টি টি-২০ ম্যাচে একটি সেঞ্চুরি এবং ৫টি হাফসেঞ্চুরি-সহ ১,৬০৫ রান করেছেন তিনি৷ শেষের দিকে অবশ্য জাতীয় দলে আর জায়গা হচ্ছিল না রায়নার। ভারতের জার্সিতে শেষ খেলেছেন ২০১৮ সালে।

 

 

আরও পড়ুনঃসৌরভ যে 'দাদা',তা বুঝিয়ে দিলেন ধোনির অবসর নিয়ে করা এই মন্তব্যে

আরও পড়ুনঃধোনির ৫টি আন্তর্জাতিক রেকর্ড, যা ভাঙা একপ্রকার অসম্ভব

শোনা যাচ্ছিল আইপিএলে ভাল খেলে ফের ভারতীয় দলের ফিরতে চান রায়না। সেইভাবে নিজেকে তৈরিও করেছিলেন। কিন্তু শনিবার নিজের প্রিয় অধিনায়কের সঙ্গে অবসর ঘোষণা করলেন তিনি। ধোনি যেমন কাউকে জানতে দেননি তাঁর অবসরের কথা, রায়নাও কাউকে টের পেতে দেননি। বরাবরই ধোনির খুব কাছের মানুষ ছিলেন রায়না। তাবলে অধিনায়ক তথা  বন্ধুর প্রতি এমন আনুগত্য খুব একটা দেখা যায়না। একই দিনে দুই তারকার অবসর এমন ঘটনা আগে কোনও দিনও ভারতীয় ক্রিকেটে ঘটেছে কিনা সন্দেহ রয়েছে। রায়না ক্রিকেটকে বিদায় জানানোর পর তাকে আগামি জীবনের জন্য শুভেচ্ছা জানিয়েছেন প্রাক্তন তথা বর্তমান ভারতীয় দলের সদস্যরা। তবে আইপিএলে সিএসকের নিজেকে প্রমাণ করতে মরিয়া সুরেশ রায়না।