অসুস্থ ভারতীয় ব্যাটসম্যান সুরেশ রায়না। বেশ কিছুদিন যাবৎ হাঁটুর সমস্যায় ভুগছিলেন তিনি। তাই একপ্রকার বাধ্য হয়েই অস্ত্রোপচারের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন এই ক্রিকেটার। তাঁর হাঁটুর অস্ত্রোপচার সফল হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। এই অস্ত্রপচারের ফলে আপাতত বিশ্রামে রয়েছেন এই জনপ্রিয় ক্রিকেট তারকা। চিকিৎসকেরা এই সময় তাঁকে অন্তত ৪-৬ সপ্তাহ বিশ্রাম নেওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন। আর চিকিৎসকের এই সিদ্ধান্তের ফলেই কপালে ভাঁজ পড়েছে ঘরোয়া ক্রিকেটে। এই পরিস্থিতিতে ২০১৯-২০ তে হওয়া ঘরোয়া ম্যাচগুলিতে রায়না খেলতে পারবেন কিনা সে বিষয়ে এখনও প্রশ্ন থেকে গিয়েছে। 

শেষ কিছু মাস ধরেই হাঁটুর সমস্যায় ভুগছিলেন রায়না।  শুক্রবার অ্যামস্টারডামে তাঁর হাঁটুতে অস্ত্রোপচার হয়েছে। তবে সমস্যাটা অন্যদিকে, চলতি মাসের ১৭ তারিখ থেকে শুরু হওয়া দিলীপ ট্রফিতে খেলার কথা ছিল রায়নার। সেই দল থেকেও বাদ পড়েছেন তিনি। তাছাড়াও ২৪ সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হওয়া বিজয় হাজারে ট্রফিতেও খেলতে পারবেন না এই বাঁহাতি ব্যাটসম্যান। বিসিসিআই তরফ থেকে জানানো হয়েছে, সমস্যার কারনে সুরেশ রায়নার হাঁটুতে সার্জারি করা হয়েছে। এবং সার্জারিটি সফল হয়েছে। তবে রায়নাকে পুরোপুরি সুস্থ হতে প্রায় ৪-৬ সপ্তাহ লাগবে বলেও জানিয়েছে বিসিসিআই। 

২০১১ বিশ্বকাপে নক্ষত্রের মতো জ্বলেছিলেন এই ভারতীয় অল রাউন্ডার। ২০১৮ সালে ইংল্যান্ডে হওয়া সীমিত ওভারের খেলাতেই আপাতত দলের হয়ে শেষবার খেলেছেন রায়না। তবে থেমে থাকেননি তার পরেও। প্রতি বছর আইপিএলে নিজের প্রতিভার অসাধারন পরিছয় দিয়েছেন তিনি। আইপিএলে চেন্নাই সুপার কিংস এর জার্সি গায়েই তাঁকে দেখতে অভ্যস্ত সকলে।  তবে চলতি বছরের আইপিলে কিছুটা ছন্দের অভাব ছিল তাঁর খেলার মধ্যে। সেকারনেই ৩ টি সিজন মিলিয়ে রায়নার মোট রান ৪০০ থেকেও কম। ১৭ টি ম্যাচে মোট ৩৮৩ রান রয়েছে এই খেলোয়াড়ের ঝুলিতে। যার গড় ২৩.৯৩।