ভারতীয় ক্রিকেট দলে যে সবকিছু ঠিকঠাক চলছে না, তা এখন ওপেন সিক্রেট, সবার জানা। ইংল্যান্ডে বিশ্বকাপ থেকে ভারতের বিদায়ের পরই দলের মধ্যে বিরাট-রোহিত গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের অভিযোগ উঠেছিল। তারপর থেকে এই বিষয়ে জল্পনা ক্রমেই বেড়েছে। কিন্তু প্রথম থেকেই শাক দিয়ে মাঠ ঢাকার চেষ্টা করেছেন ভারতীয় বোর্ডের প্রশাসনিক কমিটি। কিন্তু এবার জানা গেল সিওএ-র সেই ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টাও ক্রিকেটারদের অবাধ্যতায় মাঠে মারা যেতে বসেছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বোর্ডের এক পরদস্থ কর্তার দাবি, সংবাদমাধ্যমের সামনে দলের অন্দরে কোনও গন্ডগোল নেই তা প্রমাণের আপ্রাণ চেষ্টা চালাচ্ছেন সিওএ সদস্যরা। অথচ সবাই জানেন, একদিনের দলের ফাটলের কথা। ওই বোর্ড কর্তার আরও দাবি সম্প্রতি না কি প্রশাসনিক কমিটির এক সদস্য ভারতীয় দলের এক সিনিয়র ক্রিকেটারকে সোশ্যাল মিডিয়ায়, সব ঠিক আছে জানিয়ে ইতিবাচক পোস্ট করার নির্দেশ দিয়েছিলেন।

শুরুতে জানা গিয়েছিল বিশ্বকাপ ব্যর্থতার পর্যালোচনাতে বসেই এই বিষয় নিয়ে ক্রিকেটারদের জবাব চাইবে প্রশাসনিক কমিটি। কিন্তু পরবর্তীকালে তাদের মনোভাব বদলে যায়। প্রকাশ্যে, দলের মধ্যে যে  কোনও সমস্যা আছে, তাই অস্বীকার করেন সিওএ প্রধান বিনোদ রাই। বরং এই সবই সংবাদ মাধ্যমের তৈরি কাহিনি বলে অভিযোগ করা হয়। কিন্তু এরপরই রোহিত শর্মা, বিরাট কোহলির স্ত্রী তথা বলিউড অভিনেত্রী অনুষ্কা শর্মাকে ইনস্টাগ্রামে আনফলো করে দেন। পরপরই অনুষ্কা এক ধাঁধায় ভরা পোস্ট করেন, যার লক্ষ্য মনে করা হচ্ছে রোহিতই ছিলেন। তাতেই সবটা যে সংবাদমাধ্যমের মনগড়া গল্পকথা নয়, তা স্পষ্ট হয়ে গিয়েছে।