প্রথম ইনিংসে বিরাট কোহলির দ্বিশতরানের ও ময়ঙ্ক আগরওয়ালের দুরন্ত শতরানে দক্ষিণ আফ্রিকাকে ৬০১ রানে পিছনে ফেলে দিয়েছিল ভারতীয় দল। দ্বিতীয় দিনে দক্ষিণ আফ্রিকার কিছুটা ম্যাচে ফেরার রাস্তা থাকলেও, শুক্রবার বিরাট কোহিলর লড়াকু ২৫৪ রানের ইনিংসে পুরোপুরি ভাবে ব্যাকফুটে চলে যায় প্রোটিয়ারা। সেই সুবাদে দ্বিতীয় দিনের শেষে দক্ষিণ আফ্রিকাকে চাপে ফেলতে শুরু করে ভারতীয় বোলাররা। তবে তৃতীয় দিনে ফের একবার নতুন করে খেলায় ফেরার সুযোগ পেলেও সহজেই ভারতীয় বোলাররা পরাস্ত করে দিল দক্ষিণ আফ্রিকা ব্যাটিংকে। তৃতীয় দিনের শেষে দক্ষিণ আফ্রিকাকে মাত্র ২৭৫ রানে অলআউট করে দেয় অশ্বিন, শামিরা। আর সেই সুবাদে প্রথম ইনিংসে ৩২৬ রানে এগিয়ে গেল ভারতীয় দল। তবে এত রানে এগিয়ে থাকলেও এখনও ফলো অন নিয়ে কোনও রকম সিদ্ধান্ত জানাননি ভারতীয় দলের অধিনায়ক।

আরও পড়ুন, বিরাট বিক্রমে প্রোটিয়াদের ওপর ৬০১ রানের পাহাড় চাপাল ভারত, তিন উইকেট হারিয়ে চাপে প্রোটিয়ারা

তৃতীয় দিনে খেলার শুরু থেকেই দাপট বজায় রেখেছিল ভারতীয় বোলাররা। শামি, উমেশ, অশ্বিনের দাপটে মধ্যন্নভোজ বিরতির মধ্যে তিন উইকেট পরে গিয়েছিল প্রোটিয়াদের। ১৩৬ রানে ৬ উইকেট হারিয়ে ফেলেছিল দক্ষিণ আফ্রিকা দল। তবে মধ্যন্নভোজ বিরতির পর ব্যাট হাতে দলের হয়ে একমাত্র লড়াই করছিলেন অধিনায়ক ফাফ ডুপ্লেশিস। তবে সেই লড়াই বেশিক্ষণ স্থাই করতে পারেননি প্রোটিয়া অধিনায়ক। প্র্যাত্যাশা মতন দিনের শেষে ২৭৫ রানেই অল আউট হয়ে যায় প্রোটিয়া ব্রিগেড। ডুপ্লেশিসের পাশাপাশি এদিন প্রোটিয়াদের রানের ব্যাবধান কমাতে ব্যাট হাতে ৪৪ রানের ইনিংস খেলেন লোয়ার অর্ডার ব্যাটসম্যান ফিল্যান্ডার। পাশাপাশি ১০ নম্বরে ব্যাট করতে নেমে লড়াকু ইনিংস খেলেন কেশভ মহারাজও। ফিল্যান্ডার ৪৪ রানে অপরাজিত থাকলেও, মহারাজের ব্যাট থেকে আসে ৭২ রান। তবুও প্রথম ইনিংসে টপ অর্ডার ও মিডল অর্ডারের ব্যর্থতায় বড় রানে পিছিয়ে পরে দক্ষিণ আফ্রিকা দল।

আরও পড়ুন, মেয়ের নাচের ভিডিও পোস্ট করে ইনস্টাগ্রামে ঝড় তুললেন মহম্মদ শামি

পাশাপাশি তৃতীয় দিনেও দুরন্ত ছন্দে দেখা গিয়েছে ভারতীয় বোলিং লাইন আপকে। উমেশ যাদবের ৩ উইকেটের পাশাপাশি প্রথম ইনিংসে শামির ঝুলিতে আসে ২ উইকেট। ৪ উইকেট পান রবিচন্দ্র অশ্বিন ও একটি উইকেট পান জাদেজা। টিম ইন্ডিয়ার দুরন্ত বোলিংয়ে মাত্র ২৭৫ রানেই শেষ হয়ে যায় দক্ষিণ আফ্রিকার ইনিংস। আর সেই সুবাদে ৩২৬ রানে এগিয়ে থেকেই এবার চতুর্থ দিনের লড়াইয়ে নামবে ভারতীয় দল। তবে ফলো অন দেওয়া নিয়ে এখনও পর্যন্ত নিশ্চিত নন ভারতীয় দলের অধিনায়ক। তবে ম্যাচ আরও সহজ জেতার জন্য ফলো অন দিয়ে দক্ষিণ আফ্রিকাকে ইনিংসে হারানো উচিত ভারতীয় দলের এমনটাই মনে করছে ক্রিকেট বিশেষজ্ঞরা।