১৫ জুলাই যান্ত্রিক গোলোযোগে থেমে গিয়েছি উড়ান। কিন্তু দিন কয়েকের মধ্য়েই সেই ত্রুটি সংশোধন করে ভারতের চন্দ্রযান ২ উড়ে গিয়েছে চাঁদের দক্ষিণ মেরুর উদ্দেশ্যে। ভারতের মহাকাশ চর্চা কেন্দ্র 'ইসরো'র এই সাফল্যে খুশিতে মাতোয়ারা গোটা ভারত। বিভিন্ন ক্ষেত্রের সেলিব্রিটিরাও এই সাফল্যের জন্য ইসরোকে অভিনন্দন জানিয়েছেন। কিন্তু ক্রিকেটার হরভজন সিং-এর বিশেষ অভিনন্দন বার্তা নেট-ভারতকে দ্বিধাবিভক্ত করে দিয়েছে।

টুইটারে প্রাক্তন ভারতীয় অফস্পিনার ভারতের এই সাফল্যকে তুলে ধরতে গিয়ে নাম না করে পাকিস্তানকে ঠুকেছেন। তিনি পাকিস্তান-সহ কয়েকটি মুসলিম দেশ, যাদের পতাকায় চাঁদের ছবি রয়েছে, তাদের জাতীয় পতাকার ছবি দিয়ে লেখেন, কিছু কিছু দেশের পতাকায় চাঁদ রয়েছে, আর কিছু কিছু দেশের চাঁদের মাটিতে পতাকা আছে।' ভাজ্জি ভারত-সহ চাঁদে পারি দেওয়া চারটি দেশের পতাকার ছবিও দেন পোস্টটির সঙ্গে।

এই পোস্টটি নিয়েই নেট দুনিয়ায় দুই রম মত প্রকাশ করেছেন ভারতীয়রা। একপক্ষ মনে করছেন, এটা একটা বেশ ভাল রসিকতা। আরেক পক্ষের বক্তব্য ভাজ্জির টুইট, বর্ণবিদ্বেষী, ইসলাম বিদ্বেষী। আবার অনেকে বলেছেন, এতে ভারতের ভাবমূর্তিই খারাপ হয়েছে। নিজের সাফল্য উদযাপন করতে গিয়ে অন্যকে ছোট করা উচিত নয় বলেই সাফ জানিয়েছেন তাঁরা।

কেউ কেউ হরভজনকে মনে করিয়ে দি.য়েছেন, নেপালের পতাকাতেও চাঁদের ছবি আছে। কিন্তু ভাজ্জি, সেই পতাকার ছবি না দিয়ে শুধু মুসলিম দেশগুলিকেই নিশানা করেছেন। কেউ বলেছেন, চাঁদে পারি দেওয়াটাই কোনও দেশের উন্নয়নের মাপকাঠি হতে পারে না। পতাকায় চাঁদ থাকা অনেক দেশই মানব সম্পদ উন্নয়নের দিক থেকে চাঁদে যাওয়া দেশগুলির থেকে এগিয়ে। কেউ কেউ সরাসরি দেশের সাফল্যে সাম্প্রদায়িক রঙ চড়ানোর দায়ে অভিযুক্ত করেছেন হরভজনকে।