মহিলা হোটেল কর্মীর সঙ্গে অশালীন আচরণের গুরুতর অভিযোগ। কলকাতা থেকে পত্রপাঠ বাড়ি ফেরত পাঠিয়ে দেওয়া হল দিল্লির দুই প্রতিশ্রুতিমান ক্রিকেটার। অভিযুক্ত দুই ক্রিকেটারের নাম কুলদীপ যাদব এবং লক্ষয় থারেজা। দু' জনেই অনুর্ধ্ব ২৩ দিল্লি রঞ্জি দলের সদস্য। বাংলার বিরুদ্ধে সি কে নাইডু ট্রফির ম্যাচ খেলতে কলকাতায় এসেছিলেন ওই দুই ক্রিকেটার। 

সংবাদসংস্থার খবর অনুযায়ী, ব্যাটসম্যান থারেজা ইতিমধ্যেই দিল্লির সিনিয়র দলের হয়ে একটি লিস্ট এ ম্যাচ খেলে ফেলেছেন। সেই ম্যাচে অর্ধ শতরানও করেন তিনি। অন্যদিকে ইশান্ত শর্মার পরিবর্তে পঞ্জাবের বিরুদ্ধে রঞ্জি ট্রফির পরবর্তী ম্যাচে খেলার কথা ছিল পেসার কুলদীপ যাদবের।

জানা গিয়েছে, দিল্লি দলের পক্ষ থেকে নিঃশর্ত ক্ষমা চেয়ে নেওয়ায় হোটেল কর্তৃপক্ষ ওই দুই ক্রিকেটারের বিরুদ্ধে পুলিশে অভিযোগ দায়ের করেনি। যদিও পরিস্থিতি সামাল দিতে দিল্লি ক্রিকেট সংস্থার ডিরেক্টর সঞ্জয় ভরদ্বাজ নিজে কলকাতায় চলে আসেন। অভিযুক্ত দুই ক্রিকেটারকে শুক্রবার থেকে শুরু হওয়া ম্যাচে না খেলিয়ে বাড়ি পাঠিয়ে দেওয়া হয়। 

দিল্লিরই এক ক্রিকেট কর্তা সংবাদসংস্থার কাছে স্বীকার করেছেন, ওই দুই ক্রিকেটার অভিযোগকারিণী হোটেল কর্মীর ঘরের বাইরে গিয়ে দরজায় ধাক্কা দিয়ে তাঁকে ডাকার চেষ্টা করেন। গোটা ঘটনাই সিসিটিভি ফুটেজে ধরা পড়ে যায়। 

পঞ্জাবের বিরুদ্ধে পরবর্তী রঞ্জি ম্যাচে দিল্লির সিনিয়র দলে তারকা পেসার ইশান্ত শর্মাকে পাওয়া যাবে না বলে তাঁর বদলে কুলদীপকে খেলানোর কথা ভাবা হয়েছিল। ফলে তাঁকে যথেষ্ট প্রতিশ্রুতিমান বলেই বিবেচনা করছিল দিল্লি ক্রিকেট সংস্থা। এখন দেখার দুই অভিযুক্ত ক্রিকেটারের বিরুদ্ধে ডিডিসিএ কোনও শাস্তিমূলক পদক্ষেপ করে কি না।