ওয়েস্টইন্ডিজ সফরের আগে সাংবাদিক বৈঠকে রোহিতের সঙ্গে তাঁর সম্পর্কের ফাটল নিয়ে মুখ খুললেন স্বয়ং ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলি। স্বাভাবিকভাবেই সম্পর্কের অবনতি হওয়ার সব জল্পনা উড়িয়ে দিয়েছেন তিনি। এদিন তিনি বলেন, বাইরে অনেক কথাই চলছে। কিন্তু ড্রেসিংরুমের পরিবেশ ভাল না থাকলে একদিনের ক্রিকেটে ভারত এত ভাল খেলতে পারত না।

তিনি জানান, বিশ্বকাপেও দল ভালই খেলেছে। যে ধারাহবাহিকতা দল দেখিয়েছে তা সম্ভব হয়েছে, দলের সবার মধ্যে সদ্ভাব থাকার ফলেই। পারস্পরিক বোঝাপড়া, বিশ্বাস মজবুত থাকার ফলেই। তিনি আরও জানান, সংবাদমাধ্যমে তাঁর ও রোহিত শর্মার মধ্যে ঝামেলার খবর পেয়ে তিনি অত্যন্ত অবাক হয়েছেন। সংবাদমাধ্যমে এই নিয়ে নিত্য নতুন খবর পড়াটা তাঁদের পক্ষে অত্যন্ত বিরক্তকর বলেও তিনি মন্তব্য করেন।

তবে বিরাট-রোহিত সম্পর্কের টানাপোড়েন শুধু এই দুই ক্রিকেটারের মধ্যেই আটকে থাকেনি। তাঁদের স্ত্রীদের সম্পর্ক নিয়েও কথা উঠেছে। যা নিয়েও বিরাট তাঁর অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন। ব্যক্তিগত জীবনকে এই ক্ষেত্রে টেনে আনাটা খুবই লজ্জাজনক কাজ বলে তিনি মন্তব্য করেন। সম্পূর্ণ মিথ্যাকে খুব বিশ্বাসযোগ্যভাবে উপস্থাপন করা হয়েছে। সরাসরি চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিয়ে তিনি বলেছেন, ড্রেসিংরুমে ঢুকলেই দেখা যাবে কতটা স্বাস্থ্যকর পরিবেশ রয়েছে সেখানে।

বিরাটের দাবি মেনে নিয়ে যদি ধরে নেওয়া হয়, সত্যি সত্যিই পুরোটা সংবাদমাধ্যমের মনগড়া কাহিনি, তাহলেও এই ধরণের প্রতিবেদনে ড্রেসিংরুমের পরিবেশ নষ্ট হতে পারে। তবে বিরাট তা মনে করছেন না। কারণ তাঁর মতে তিনি খুবই স্বচ্ছ মানুষ। কাউকে পছন্দ না করলে তিনি তা লুকোতে পারেন না। রোহিতের সঙ্গে বিষয়টা একেবারে উল্টো। তিনি সবসময়ই রোহিতের প্রশংসাই করে এসেছেন।

বিরাট প্রশ্ন তুলেছেন এতে কার লাভ হচ্ছে? তিনি আরও বলেন , ভারতীয় ক্রিকেটকে আরও উচ্চতায় নিয়ে যাওয়াটাই তাদের লক্ষ্য। আর তাদের দল যে আবেগ নিয়ে খেলে, দলের মধ্যে ঝামেলা থাকলে সেইভাবে খেলা যেত না।