বিরাট কোহলি বিশ্বরেকর্ড করছেন, এটা আর এখন কোনও খবর নয়। এখন তিনি মাঠে নামলেই এদিক এদিক দিয়ে কিছু না কিছু রেকর্ড হয়েই যায়। কিন্তু, যখন সেই রেকর্ডের সঙ্গে সঙ্গে ছাপিয়ে যাওয়ার হাতছানি থাকে সর্বকালের অন্যতম সেরা ব্য়াটসম্য়ান ও অধিনায়ক রিকি পন্টিং-কে, তখন তা আলাদা করে উল্লেখ করতেই হয়। মঙ্গলবার থেকেই শুরু হয়ে যাচ্ছে ভারত বনাম অস্ট্রেলিয়া তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ। আর প্রথম ম্য়াচেই বিরাটের সামনে হাতছানি রয়েছে কিংবদন্তি অজি অধিনায়ককে ছাপিয়ে বিশ্ব রেকর্ডের দখল নেওয়ার।

আর একটি মাত্র শতরান করতে পারলেই ক্রিকেটের সব ফর্ম্যাট মিলিয়ে অধিনায়ক হিসেবে সর্বোচ্চ আন্তর্জাতিক শতরানের অধিকারি হবে বিরাট। এখনও পর্যন্ত এই রেকর্ডের অন্যতম ভাগিদার রিকি পন্টিং। অধিনায়ক হিসাবে তাঁর শতরানের সংখ্যা ৪১। গত নভেম্বরে ইডেন গার্ডেন্সে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে পিঙ্ক টেস্টে ভারত অধিনায়ক পন্টিং-এর সেই রেকর্ডে ভাগ বসিয়েছিলেন। এবার সময় রেকর্ডে একক দখল নেওয়ার। তবে এটাও উল্লেখযোগ্য, রিকি পন্টিংয়ের ৪১ শতরান করতে লেগেছিল ৩৭৬টি ইনিংস। আর বিরাট নিয়েছেন মাত্র ১৯৬টি ইনিংস।

অধিনায়ক হিসাবে কোহলির টেস্ট ক্রিকেটে  ২০টি সেঞ্চুরি আছে, আর একদিনের ক্রিকেটে করেছেন ২১ টি শতরান। অনেক সময়ই দেখা যায় অধিনায়কত্বের চাপে ক্রিকেটাররা প্রত্যাশিত পারফরম্যান্স দিতে পারছেন না। স্বংয় সচিন তেন্ডুলকরের ক্ষেত্রেই এমনটা ঘটেছিল। বিরাটের ক্ষেত্রে কিন্তু অধিনায়কত্বের দায়িত্বে খেলা আরও খুলেছে। কোহলির এমনিতে টেস্টে রানের গড় যেখানে ৫৪.৯৭ সেখানে অধিনায়ক হিসাবে গড় ৬৩.৮০। ওয়ানডেতে এই পার্থক্যটা আরও বেশি। কেরিয়ারের গড় ৫৯.৮৪, আর অধিনায়ক হিসাবে ৭৭.৬০।