আইপিএল খেলতে ইতিমধ্যেই আরব আমিরশাহি পৌছে গিয়েছে  আইপিএলের সবকটি দল। বিসিসিআইয়েপ এসওপি মেনেই বিমান বন্দরে নামার সঙ্গে সঙ্গে সকল প্লেয়ারদের করোনা পরীক্ষা করা হচ্ছে। তারপরই হোটেলে যাচ্ছেন ক্রিকেটাররা। হোটেলে আগামি ৬ দিনে আরও ৩ বার করোনা পরীক্ষা করা হবে প্লেয়ারদের। সেই টেস্ট নেগেটিভ এলেই মিলবে অনুশীলন শুরু অনুমতি। তবে মেনে চলতে জৈব সুরক্ষা বলয়ের সমস্ত নিয়ম। অনুশীলন শুরুর আগে হোটেলেই বন্দি রুম বন্দি রয়েছেন ক্রিকেটাররা। আইসোলেশনে থেকেই করোনা পরীক্ষা করা হবে সকলের।  তাই এই কদিন সতীর্থ দের সঙ্গেও দেখাও করকে পারবেন না ক্রিকেটাররা। 

আরও পড়ুনঃঘোষণা হল আইসিসির হল অব ফেম, জায়গা পেলেন জ্যাক কালিস,জাহির আব্বাস ও লিসা স্থালেকার

আবুধাবিতে হোটেলে অন্যান্য ক্রিকেটারদের মতউ ঘরবন্দি রয়েছেন বিরাট কোহলিও। কিন্তু তিনি যে এমনি এমনি কিম কোহলি হননি তার প্রমাণ আরও একবার দিলেন বিরাট। কারণ ভারতীয় ক্রিকেট দলের ফিটনেসের মান বদলে দেওয়ার কৃতিত্ব তাঁকেই দেওয়া হয়৷ নিজের ব্যাটিংয়ের মতোই ফিটনেসকেও সমান গুরুত্ব দেন ভারত অধিনায়ক৷ সর্বদা ফিটনেসের চূড়ান্ত পর্যায়ে থাকতে চান তিনি৷ কিন্তু তাঁর এই ঈর্ষণীয় ফিটনেসের পিছনে কতখানি পরিশ্রম এবং নিষ্ঠা রয়েছে, তার প্রমাণ অতীতেও পাওয়া গিয়েছে৷ দুবাইতে আইপিএল খেলতে গিয়ে আরও বিরাট ফের বুঝিয়ে দিলেন, ফিটনেস নিয়ে ঠিক কতখানি সচেতন তিনি। ঘরবন্দি থাকা অবস্থাতেও নিজের ফিজিক্যাল ও ফিটনেস ট্রেনিম চালিয়ে যাচ্ছেনতিনি। সোশ্যাল মিডিয়ায় সেই ছবিও শেয়ার করেছেন বিরাট কোহলি।

 

 

আরও পড়ুনঃ'ধোনিকে দেখে মনে পড়ে স্বামীর কথা', হঠাৎ কেন এমন বললেন সানিয়া মির্জা

আরও পড়ুনঃমহারাষ্ট্রে ধোনি ও রোহিত সমর্থকদের মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষ, আহত বেশ কয়েকজন, পরিস্থিতি সামাল দিতে ময়দানে

এর আগে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার ব্যাঙ্গালোর দল আরব উড়ে যাওয়ার সময় বিরাট কোহলিকে টিমের সেলফিতে না দেখা যাওয়ায় জল্পনা তৈরি হয়েছিল। তবে বিরাট পরে হোটেলের রুম থেকে ছবি দিয়ে সেই জল্পনায় জল ঢালেন। তবে এই সব কিছুর বাইরে যে বিরাট কোহলির প্রধান লক্ষ্য আরসিবিকে আইপিএল চ্যাম্পিয়ন করা তা তিনি বার বার বলেছেন। কারণ আইপিএলের ১২টি মরসুমে দুবার ফাইনালে উঠলেও ট্রফি অধরা রয়ে গিয়েছে বিরাটের দলের। এই মরুদেশে সেই স্বপ্ন পূরণ করতে চান বিরাট।