১৯৯৭ সালের, টরন্টো। চলছে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী দুই দেশ ভারত-পাকিস্তানের সাহারা কাপের দ্বিতীয় ম্যাচ। পাকিস্তানের দেওয়া ১১৬ রানের লক্ষ্য তাড়া করছিল ভারতীয় ক্রিকেট দল। ইনিংসের ১৬ তম ওভারে হঠাৎ দেখা গেল ফিল্ডিং করতে করতে মারমুখী পাকিস্তানের তারকা ক্রিকেটার ইনজামাম উল হক। না কোনও ক্রিকেটার নয়, সেদিন ব্যাট হাতে গ্যালারির দিকে ধেয়ে যায় ইনজি। পরে কোনো ক্রমে নিরাপত্তারক্ষী ও অন্যান্য প্লেয়াররা মিলে আটকান ইনজামামকে। সেই সময়ে শোনা গিয়েছিল, তাঁকে ব্যঙ্গবিদ্রুপ করায় ক্ষুব্ধ ইনজি ছুটে গিয়েছিলেন সেই দর্শককে মারতে। ঘটনার ২৪ বছর পর সেদিনের ঘটনার পেছনে আসল কারণের রহস্য উন্মোচন করলেন পাকিস্তানের কিংবদন্তী পেসার ওয়াকার ইউনিস।

আরও পড়ুনঃএমন কোন ঘটনা পাল্টে দিয়েছিল সৌরভ গঙ্গোপাধ্য়ায়ের গোটা জীবন

ওয়াকার উইনিস জানিয়েছেন,প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক মহম্মদ আজহারউদ্দিনের স্ত্রীকে অপমান করাতেই ক্ষেপে গিয়েছিলেন ইনজামাম। সেই দর্শককে উচিত শিক্ষা দিতে চেয়েছিলেন তিনি। এই ঘটনার উদাহরণ দিয়ে দুই দেশের প্লেয়ারদের বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্কের কথাও বলেছেন ওয়াকার। তিনি বলেন,'দর্শকদের মধ্যে থেকে ইনজামামকে ‘আলু’ বলে ডাকা হচ্ছিল। দর্শকদের মধ্যে কেউ কেউ আজহারউদ্দিনের স্ত্রী সম্পর্কে খারাপ কথাও বলছিল। ইনজির সেটা ভাল লাগেনি। আমরা মাঠে একে অপরের প্রতিপক্ষ ছিলাম ঠিকই কিন্তু আমাদের মধ্যে দারুণ বন্ধুত্ব ছিল। গ্যালারি থেকে কেউ এক জন আজহারের স্ত্রী সম্পর্কে বাজে কথা বলেছিল। সেই সময়ে সম্ভবত সেলিম মালিক অধিনায়ক। ওকে বলে ফাইন লেগে ফিল্ডিং করতে গিয়েছিল ইনজামাম। টুয়েলভথ ম্যানকে ডেকে একটা ব্যাট নিয়েছিল। সেই ব্যাট নিয়ে তেড়ে গিয়েছিল ইনজামাম।'

আরও পড়ুনঃআরব দেশেই হবে আইপিএল ২০২০,তবে রয়েছে একাধিক শর্ত

আরও পড়ুনঃঅনেক দিন পর মন খুলে হাসছেন ধোনি, ভিডিও ভাইরাল নেট দুনিয়ায়, হাসির কারণটা কী

সেই ঘটনার জন্য শাস্তির হাত থেকে রেহাই পাননি ইনজামাম উল হক। আাদলত পর্যন্ত যেতে হয়েছিল ইনজিকে। ক্ষমা চাওয়ার পাশাপাশি দুই ম্যাচ সাসপেন্ড থাকতে হয়েছিল পাক তারকাকে। ওয়াকার জানিয়েছেন, পরে আজহার ওই দর্শকের সঙ্গে সাক্ষাৎ করে সমস্যা মিটিয়ে নেন। এতদিন ধরে নানা জল্পনা চলত ইনজিমামের ব্যাট হাতে দর্শক পেটানোর কারণ নিয়ে। অবশেষে  ২৩ বছর পর ঘটনার পেছনে আসল ঘটনা জানতে পারল ক্রিকেট বিশ্ব।