নিজে যখনই সর্বকালের সেরা একাদশ পাছবেন, সেই দলে যুবরাজ সিং থাকবেনই, স্পষ্ট জানালেন ভারতের প্রথম বিশ্বকাপ জয়ী অধিনায়ক কপিলদেব নিখাঞ্জ। তবে যেভাবে আঈন্তর্জাতিরক ক্রিকেট থেকে তাঁর বিদায় ঘটল তাতে নাখুশ কপিল পাজি। তাঁর মতে যুবরাজের অবশ্যই বিদায়ী ম্যাচ প্রাপ্য ছিল।

গত সোমবার আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসর নিয়েছেন যুবি। ওই দিন মুম্বইয়ের এক হোটেলে সাংবাদিক সম্মেলন করে জানিয়েছিলেন তিনি নিজে কখনও বোর্ডকে বিদায়ী ম্যাচের জন্য অনুরোধ না করলেও বিসিসিআই-এর পক্ষ থেকেই তাঁকে বিদায়ী ম্যাচ খেলার প্রস্তাব দেওয়া হয়েছিল। বলা হয়, যদি যুবি 'ইয়োইয়ো' টেস্ট পাস না করতে পারেন, তাহলে তাঁর বিদায়ী ম্যাচের আয়োজন করা হবে।

তবে যুবি বরাবর বাঘের বাচ্চার মতোই খেলেছেন। বোর্ড কর্তাদের জানিয়ে দেন, তার কার নেই। ইয়োইয়ো টেস্ট পাস না করলে বিনা বাক্যে বাড়ি চলে যাবেন। খেললে নিজের যোগ্যতায় খেলবেন।

এই বিষয়ে কপিল বলেন, তিনি সর্বকালের সেরা একাদশ বানাতে বসলে, যুবরাজ সেই দলে সবসময় জায়গা পান। তবে তাঁর মতে যুবি মাইক হাতে 'বিদায় নিলাম' থেকে যদি ব্য়াট হাতে একটি ভাল ইনিংস খেলে বিদায় নিতেন তাহলেই বেশি ভাল লাগত। কপিলের মতে ভারকতীয় ক্রিকেটে যুবরাজের যে অসামান্য অবদান, তাতে আরও অনেক সাফল্য উচিত ছিল তাঁর।

যুবির দায় সমবাদ পেয়ে ভারতীয় দলের সহ-অধিনায়ক রোহিত শর্মাও জানিয়েছিলেন যুবরাজের বিদায়টা আরও ভাল হতে পারত। ক্রিকেট মহলে অনেকেই বলছেন যুবরাজের মাপের খেলোয়াড় মাঠ থেকে বিদায় নিতে পারলেই যথাযথ হত। তবে ক্যানসারে বিরুদ্ধে জীবন যুদ্ধে জয়ী যুবি নিজে জানিয়েছেন, তিনিও তা চেছিলেন। কিন্তু সবকিছু জীবনে পাওয়া যায় না।