বাংলায় বৃষ রাশির পরেই আসে মিথুন। এই রাশি-র জাতকরা খুবই বুদ্ধিমান হয় বলে দাবি করে জ্যোতিষশাস্ত্র। এই রাশির জাতকদের ছোট থেকেই যে কোনও বিষয়ে এক্কেবারে যাচাই করে দেখার আগ্রহ লক্ষ করা যায়। জ্যোতিষশাস্ত্র বলছে এই রাশির জাতকদের আঠারোর আগেই যৌন-সম্পর্কে জড়ানোর একটা সম্ভাবনা থাকে। এমনিতে মিথুন বললেই মনের মধ্যে ভেসে ওঠে দুটি মানুষের সঙ্গমের ছবি। মিথুন রাশির জাতকরা যদি আঠারোর আগেই যৌন সম্পর্কের মজা পান তাতে ঘাবড়ানোর কিছু নেই। কারণ জ্যোতিষশাস্ত্র অনুযায়ী এটা এই রাশির জাতকদের পক্ষে স্বাভাবিক ক্রিয়া। 

এমনটা অবশ্য মনে কোনও কারণ নেই যে যৌনতা নিয়ে সচেতনতা শুধুমাত্র মিথুন রাশির জাতকদেরই থাকে। মেষ, বৃশ্চিক এবং কুম্ভ-রাশির জাতকরাও যৌনতা নিয়ে অনেকবেশি ওয়াকিবহাল থাকে। তবে, যৌনতা নিয়ে উদ্দীপনার কৌতুহলে মিথুন রাশির জাতকরা সবার উপরে বলেই জ্যোতিষশাস্ত্রে দাবি করা হয়েছে। তাই, আপনার সন্তান যদি মিথুন রাশির জাতক হয়ে থাকে তাহলে তার উপরে নজর রাখুন। অভিভাবক হিসাবে এটা জরুরি। কারণ, বয়সের তুলনায় যৌনতা সম্পর্কে আগ্রহ বেশি ধারণ করায়  আপনার সন্তান পথভ্রষ্ট হতে পারে। জ্যোতিষ শাস্ত্র মতে মিথুন রাশির জাতকদের মধ্যে আচমকাই যৌনতার উদ্দীপনা জেগে ওঠে। এমনকী, যৌনতা নিয়ে কোনও ধরনের তথ্য সংগ্রহেও এরা পটু হয়। যৌনতামূলক কোনও ম্যাগাজিন থেকে শুরু করে যে কোনও ধরনের যৌন সমন্ধীয় তথ্য পাওয়ার ক্ষেত্রে অন্য রাশির জাতকদের তুলনায় মিথুন রাশি-র জাতকরা এগিয়ে থাকে। 

মিথুন রাশির জাতকদের বিষয়ে অভিভাবকদের আরও কিছু বিষয়ে নজর দেওয়া উচিত- 
১। শুক্রবার জন্মবার হলে- কথায় আছে শুক্রবারে জন্মানো মানে বিশ্বাস করা হয় নবজাতকের হাত ধরে লক্ষ্মী ঘরে এল। কন্যাসন্তানদের ক্ষেত্রে তো তাদেরই সত্যি সত্যি লক্ষ্মী-র মর্যাদা দেওয়া হয়। কিন্তু, আপনার সন্তান যদি হয় মিথুন। তাহলে লক্ষ্মী হওয়ার থেকেও অনেক বেশি নজর রাখতে অন্য বিষয়ে। বিশেষ করে তার যৌন চেতনার উপরে। শুক্রবারে জন্ম নেওয়া মিথুন রাশির জাতকরা শারীরিক সম্পর্কের ব্যাপারে প্রচণ্ড কৌতুহল থাকে এবং যৌন ক্ষুধা অল্প বয়সেই জেগে ওঠে। শুক্রবার ছাড়াও আরও একটি দিন সম্পর্কে সাবধান। সেটি হল মঙ্গলবার। মিথুন রাশির জাতকদের জন্য মঙ্গলবার-ও যৌন চেতনা বৃদ্ধির দিন। 

২। পূর্ণিমা-তে জন্মগ্রহণ- পূর্ণিমা-তে যেমন জোয়ার-ভাটা খেলা সবচেয়ে বড় আকার নেয়, তেমনি এই দিনে জন্মানো নবজাতক-ও যৌন চেতনার দিক থেকে অনেকবেশি সক্রিয় থাকে। এরা অনেকবেশি উদারমনের হয়। ফলে খুব দ্রুত এদের দ্বারা অন্যরা আকর্ষিত বোধ করে। পূর্ণিমাতে জন্মানো মিথুন রাশির জাতক যদি বুঝে যায় বিপরীত লিঙ্গের কেউ তার প্রতি আকৃষ্ট হয়েছে তাহলে সেও তখন তাকে প্রভাবিত করার চেষ্টা করে। তার সঙ্গে সখ্য হওয়ার চেষ্টা করে। আর এটা পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণ করে মিথুন রাশির জাতকের যৌন চেতন। এই সময় শারীরিক মিলনও অসম্ভব কোনও ব্যাপার নয়। এই ধরনের প্রবণতা মোটামুটি কৈশোরকাল থেকেই শুরু হয়ে যায়। 

৩। সকাল ও সন্ধ্যা
মিথুন রাশির জাতকদের ক্ষেত্রে আরও একটি বিষয়ে নজর রাখতে হয়, আর সেটি হল জন্মগ্রহণের সময় কাল, মানে একদম সকাল এবং সন্ধ্যা। জ্যোতিষ শাস্ত্র অনুসারে যে কোনও ট্রান্জিশন পিরিয়ডে জন্মানো মিথুন রাশি-র জাতকদের যৌন চেতন খুবই সক্রিয় থাকে। দিন এবং রাতে জন্মানো মিথুন রাশি জাতকরা এতটা বেশি সক্রিয় থাকে না। এর অবশ্য একটা কারণ দর্শানো হয়েছে, বলা হয়েছে ভোরের আলো ফুটে সকাল হতে হতে কোনও মিথুন রাশির জাতকের জন্ম হলে সে যৌনতা সম্পর্কে অনেকবেশি সক্রিয় থাকে। সন্ধ্যায় জন্মানো জাতকের ক্ষেত্রেও একই কথা প্রযোজ্য। 

৪। একটি মাত্র সন্তান- যারা বাবা-মা-এর একটি সন্তান হন তাদের মানসিক বিকাশে অনেক সমস্যা এবং জটিলতা থাকে। এই বিষয়গুলি এতটাই মানসিকতা সম্পর্কিত যে চট করে অনুধাবন করা যায় না। বাবা-মা-এর অন্তত দুই সন্তান থাকলে শিশুর মানসিক জটিলতা অনেক কম হয়। কারণ শিশুমন ছোট থেকেই কৌতুহলি থাকে। সে নতুন কিছু আবিষ্কার করতে চায়, জানতে চায়। মিথুন রাশির জাতক শিশুরা কৌতুহল নিবারণে অন্যদের থেকে অনেকবেশি এগিয়ে থাকে। কিন্তু বাবা-মা-এর একটি সন্তান হলে মিথুন রাশির জাতকদের নিয়ে চিন্তাটা থেকেই যায়। এই শিশুদের মধ্যে যৌনতা নিয়ে পরিপূর্ণতা আসে না। নিজে থেকে ট্রায়াল অ্যান্ড এরর মেথড বা ভুল প্রচেষ্টা পদ্ধতিকে অনুসরণের চেষ্টা করে। এতে অল্প বয়সেই মিথুন রাশির জাতকরা যৌনতার স্বাদ পেয়ে যায়।