এর আগে এক জনসভায় বলেছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে গণতন্ত্রের থাপ্পর মারার কথা। যা নিয়ে দেশজুড়ে বিতর্কও তৈরি হয়েছিল। এবার বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভাঙা প্রসঙ্গে মোদীকে 'মিথ্য়াবাদী প্রধানমন্ত্রী' বলে 'কান ধরে ওঠবোস' করানোর নিদান দিলেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী তথা তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দোপাধ্যায়।

গত মঙ্গলবার সন্ধ্যায় কলকাতায় বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ-এর রোড শো ঘিরে বিজেপি-তৃণমূল সংঘর্ষে উত্তাল হয়েছিল উত্তর কলকাতা। বিদ্যাসাগর কলেজে ঢুকে তাণ্ডব চালানো হয়। ভাঙা হয় বিদ্য়াসাগরের মূর্তিও। এরপরই কারা সেই মূর্তি ভাঙল তাই নিয়ে চাপান উতোর তৈরি হয়েছে।

বুধবার, অমিত শাহ অভিযোগ করেছিলেন তৃণমূলই বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভেঙে তাদের দলের উপর দোষ চাপাতে চাইছে। 'সিমপ্যাথি ভোট' পাওয়ার জন্য এটাই তাদের কৌশল বলেও দাবি করেন। এদিন উত্তরপ্রদেশের এক সভা থেকে প্রায় একই কথার পুণরাবৃত্তি করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীও।  

সেই অভিযোগেরই জবাবে প্রধানমন্ত্রীকে নজিরবিহীন আক্রমণ করলেন মমতা বন্দোপাধ্যায়। এদিন দক্ষিণ ২৪ গণার মথুরাপুরে এক জনসভায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে তৃণমূনেত্রী বলেন বিদ্যাসাগরের মূর্তি  তৃণমূল ভেঙেছে দাবি করলেই হবে না, তার প্রমাণ দিতে হবে। অমিত শাহ-এর নেতৃত্বে বিজেপি কর্মীরাই যে মূর্তি ভেঙেছে, তার যথেষ্ট প্রমাণ তাঁর কাছে আছে বলে দাবি করেন তিনি।

এরপরই প্রধানমন্ত্রী এই প্রসঙ্গে মিথ্য়া বলছেন দাবি করে তিনি বলেন, 'মিথ্য়াবাদী প্রধানমন্ত্রীকে কান ধরে ওঠবোস করানো উচিত'। মমতা আরও দাবি করেন, শুধু এই একটি বিষয়েই নয়,  গত পাঁচ বছরে লক্ষ লক্ষ মিথ্যা বলেছেন নরেন্দ্র মোদী।