এবার সরাসরি বিজেপি প্রার্থী প্রজ্ঞা সিং ঠাকুরের বিরুদ্ধে ভোপালসীকে ভোট দেওয়ার আর্জি জানালেন বলিউডি চিত্রপরিচালক, অভিনেতা তথা গাায়ক পারহান আখতার। লোকসভা ভোটের শেষ দফার ভোটগ্রহণ চলার মাঝেই টুইট করে এই আর্জি জানালেন তিনি। আর তা করতে গিয়েই করলেন সময়ের ভুলচুক। সেইসঙ্গে ভোপাল গ্যাস দুর্ঘটনার মতো স্পর্শকাতর বিষয় নিয়ে করে বসলেন বেফাঁস মন্তব্য। এরপর আর তাঁকে নিস্তার দেয়নি নেটিজেনরা। সোশ্য়াল মিডিয়ায় বিদ্রুপের শিকার হয়েছেন এই বলিউডি সেলিব্রিটি।

এদিন ফারহান আখতার একটি  টুইট পোস্টে লেখেন, 'প্রিয় ভোপালের ভোটাররা, সময় এসেছে আপনাদের শহরকে আরও একটি গ্যাস ভরা বিপর্যয়ের হাত থেকে রক্ষা করার'। সেই সঙ্গে হ্য়াশট্যাগ যোগ করেন, 'সে নো টু প্রজ্ঞা', 'সে নো টু গডসে', 'রিমেমবার দ্য মহাত্মা' ও 'চুস লাভ নট হেট'।

সম্প্রতি জাতির জনক মহাত্মা গান্ধীর হত্যাকারী নাথুরাম গডসে-কে দেশপ্রেমী বলে বিতর্কে জড়িয়েছেন ভোপালের বিজেপি প্রার্থী প্রজ্ঞা সিং ঠাকুর। বিজেপি দলও সেই মন্তব্যের পাশে থাকেনি। দলের চাপে পিছু হঠতে বাধ্য হয়েছেন প্রজ্ঞা। এমনকী প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীও কড়া বার্তা দিয়েছেন এই বিষয়ে।

কিন্তু, প্রজ্ঞা বিরোধিতা করতে গিয়ে বএশ কিছু ভুল করেই ব্যাঙ্গ-বিদ্রুপের মুখে পড়লেন পারহান আখতার। প্রথমত, ভোপালের গ্রহণ হয়ে গিয়েছেন লোকসভা নির্বাচন ২০১৯-এর ষষ্ঠ দফায়। যা হয়েছে গত শনিবার (১১ মে)। কাজেই তাঁর এই আবেদনের এখন আর কোনও মূল্য নেই।

এই সময়ের বুল নিয়ে একজন বলেছেন, 'আপনার ইন্টারনেট কানেকশনটা পাল্টান। আপনার পোস্ট ১দিন পরে প্রকাশিত হচ্ছে।' আরেকজন আবার আরো কড়া সুরে বলেছন 'এইসব লোকদের বাস্তব জগতের সঙ্গে কোনও যোগাযোগই নেই।'

তবে সবচেয়ে বেশি সমালোচনা হয়েছে ভোপাল গ্যাস দুর্ঘটনার প্রসঙ্গ টানায়। ইতিহাসের অন্যতম বড় শিল্প বিপর্যয় হিসেবে ধরা হয় এই দুর্ঘটনাকে। প্রায় ১৫০০০ মানুষ বেঘোরে মারা গিয়েছিলেন। অনেকেই বলেছেন ফারহান সেই বিপর্যয়ের প্রসঙ্গ টেনে ঘটনাটিকে লঘু করেছেন। কারো কারো দাবি, ভোপাল গ্যাস দুর্ঘটনা ও সেই বিপর্যয়ের বলি হওয়া মানুষদের নিয়ে মজা করেছেন এই বলিউডি পরিচালক। এই কারণে তীব্র সমালোচনা হয়েছে তাঁর।

তবে অনেকে আবার তাঁকে সমর্থন করে তাঁর টুইটটি রিটুইট-ও করেছেন।

ফারহানের বাবা-মা জাভেদ আখতার ও শাবানা আজমি, বিজেপি ও কেন্দ্রের মোদী সরকারের অন্যতম বড় সমালোচক। এবার ফারহানও সেই দলে নাম লেখালেন।