ভোটের তপ্ত আবহাওয়া হালকা করতে ভাইপোর প্রেম কাহিনি শোনালেন পিসি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তবে সেই প্রেম কাহিনি শোনানোর মাঝে নরেন্দ্র মোদীকে তুলোধনা করেন মমতা। 

ডায়মন্ড হারবারের একটি সভায় অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় প্রসঙ্গে মমতা বলেন,"অভিষেক যাকে বিয়ে করেছে, সে বাচ্চা মেয়ে। ওরা দিল্লিতে প্রেম করত। ওর বউ এখনও বাংলা জানে না। পঞ্জাবি। তাতে কী করব? আমরা কি গিয়ে ধরব, বলো তোমার বাবার নাম কী, মায়ের নাম কী? আরে, প্রেম করতে গিয়ে কি এসব করে নাকি কেউ? প্রেম করেছে, বিয়ে করেছে, আমরা গিয়ে নেমন্তন্ন খেয়ে এলাম।"

তবে ভাইপোর বউ সম্পর্কে এখানেই থেমে থাকেননি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কিছুদিন আগে অভিষেকের স্ত্রী রুজিরা নারুলার ব্যাগে কলকাতা বিমানবন্দরে তল্লাশি চালানো হয়। সেখানে আয়কর দফতরের আধিকারিকরা অভিষেকের স্ত্রী-সহ আরও দুজনকে আটক করেন। সেখানে হঠাৎ করে গিয়ে উপস্থিত হয় স্থানীয় পুলিশ। আয়কর দফতরের সঙ্গে তাদের বচসা হয়। এই নিয়ে চলে প্রচুর জলঘোলা। এই ঘটনার ভিত্তিতে রুজিরাকে শো কজ নোটিশ পাঠায় কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক। 

এই প্রসঙ্গে মোদীকে কটাক্ষ করে মমতা বলেন, "অভিষেকের যাকে বিয়ে করেছে, সে বাচ্চা মেয়ে। ওই মেয়েটারও পিছনে পড়েছে। ভাবতে পারবেন না ওর পাঁচ বছরের বাচ্চা পর্যন্ত আমায় বলে, দিদি জানো নরেন্দ্র মোদী একজন দুষ্টু লোক। আমি জিজ্ঞাসা করলাম কেন। বলে, ও আমার মাকে জেলে পাঠাতে চায়। আমি ওকে বললাম বড়দের কথায় কান দিও না। সে তখন বলে, আমি সব জানি দিদি। আমি জয় তৃণমূল।"

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, অভিষেকের স্ত্রীর এই ঘটনা তিনি প্রথমে জানতেন না। তাঁর কথায়, "অভিষেকের মা বলল, ওর ব্যাগে শুধু সোনার বালা ছিল। তাই নিয়ে মোদীর জ্বালা। অভিষেককে টান। ওর বউকে কেন টানছিস! নোংরামির সীমা থাকা দরকার।"