চমকপ্রদ তথ্য দিল নির্বাচন কমিশন। জানা গেল কারা কাউকেই চায়নি। হ্যাঁ, কমিশনের রিপোর্টে বেরিয়ে এল নোটার হিসেবনিকেশ।

 জনাদেশে ক্ষমতার শীর্ষে আরও একবার আরোহন করতে চলেছে মোদী সরকার। ১৯৮৪ তে দুটি আসন দিয়ে যে ঘো‌ড়দৌড় শুরু হয়েছিল, সেখানেই আজ দ্বিতীয়বার নিরাঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতায় চালকের আসনে  মোদী ব্রিগেড।  অতীতের কংগ্রেসের মতই ৩০০+ আসন নিয়ে মসনদে বসতে চলেছে ভারতীয় জনতা দল। ভোট দিয়েছেন ভারতবাসী। কিন্তু শুধু মোদী নয়, কাউকেই চাননি কারা?

কমিশনের তথ্য বলছে, দিল্লি, জম্মু-কাশ্মীর, হিমাচল প্রদেশ প্রায় ৮৬ হাজার ভোট পড়েছে নোটায়। দিল্লিতে মোট ভোটারের এক শতাংশ দিয়েছে নোটার পক্ষে ভোট। সংখ্যাটা ৪৫৫৯৫, অতীতের তুলনায় ৬২২৭টি ভোট বেড়েছে।  হিমাচলে এই সংখ্যাটা ৩৩০০০ এর কিছু বেশি। বিহারে মোট ভোটের ২ শতাংশ গিয়েছে নোটার পক্ষে। পশ্চিমবঙ্গে নোটার পক্ষে ভোট পড়েছে .৯৬ শতাংশ।

মজার কথা হল নরেন্দ্র মোদীর নিজের কেন্দ্র বারানসীতেও ভোট পড়েছে নোটায়। সকলকে না বলতে গণতান্ত্রিক অধিকার প্রয়োগ করেছেন মানুষ।  মোট ভোটারের .৩৮ শতাংশ অর্থাৎ ৪০৩৭ জন নোটার বোতাম টিপেছে।

প্রসঙ্গত নোটার পক্ষে ভোট পড়েছে কাশ্মীরেও।