রাহুল গান্ধী নয়। এবার দিল্লির এক সভায় তিন দশক আগে রাষ্ট্রীয় সুরক্ষা প্রসঙ্গে রাজীব গান্ধীর উপরে বড় অভিযোগ তুললেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। 

দিল্লির রামিলা ময়দানের সভায় এদিন মোদী বলেন, দেশের যুদ্ধজাহাজ আইএনএস বিরাটকে সেই সময়ে রাজীব গান্ধী ব্য়ক্তিগত কারণে ব্য়বহার করেছেন।  

মোদীর কথায়, আপনারা কখনও শুনেছেন, কেউ যুদ্ধজাহাজে করে পরিবারের সঙ্গে ছুটি কাটাতে যাচ্ছে! অবাক হবেন না। আমাদের দেশেই এমন ঘটেছে। কংগ্রেসের সবচেয়ে বড় এই নামী পরিবার আইএনএস বিরাটকে ব্য়ক্তিগত ট্য়াক্সির মতো ব্য়বহার করেছিল। অপমান করেছিল। এই সময়ে ভারতের প্রধানমন্ত্রী ছিলেন রাজীব গান্ধী। 

গান্ধী পরিবারকে কটাক্ষ করে মোদী দাবি করেন, রাষ্ট্রীয় সুরক্ষার জন্য় দেশের আইএনএস-এ করে একটি দ্বীপে ১০ দিনের ছুটি কাটাতে গিয়েছিলেন রাজীব গান্ধীরা। শুধু বেড়াতে যাওয়াই নয়। টানা ১০ দিন সেই দ্বীপে তাঁদের সঙ্গেই ছিল যুদ্ধজাহাজ আইএনএসবিরাট সেই সময়ে রাজীব গান্ধীর সঙ্গে তাঁর শ্বশুর বাড়ির লোকজনও ছিলেন। 
এছাড়া তাঁদের সঙ্গে ছিলেন অমিতাভ বচ্চন, জয়া বচ্চন ও তাঁদের ছেলেমেয়েরা। 

সনিয়া গান্ধীর পরিবারকেও তোপ দেগে বলেন, রাজীব গান্ধীর শ্বশুরবাড়ির লোকজন ইতালি থেকে এসেছিলেন বলে কি সব ছাড় পেয়ে যাবেন। শুধু এই যুদ্ধজাহাজই নয়। সেই সময়ে ভারতীয় সেনার একটি বিশেষ হেলিকপ্টার সারাদিন ওদের দেখভাল করেছিল। এমনই দাবি মোদীর। 

এক সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্য়মের প্রতিবেদন থেকে জানা গিয়েছে, ১৯৮৭ সালের ডিসেম্বরে লাক্ষাদ্বীপের বাঙ্গারামে বেড়াতে গিয়েছিল গান্ধী পরিবার। রাজীব গান্ধীদের সঙ্গে তাঁর শ্বশুরবাড়ির সদস্য়রাও ছিলেন। ছিলেন রাহুল ও প্রিয়ঙ্কা গান্ধীর চার বন্ধু। অমিতাভ বচ্চনের ভাই অজিতাভ বচ্চন ও তাঁর পরিবারও উপস্থিত ছিল সেখানে।