দ্বিতীয়বার প্রধানমন্ত্রী হিসেবে আগামী ৩০ মে শপথ নিতে চলেছেন নরেন্দ্র মোদী। তার আগে রবিবার রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দের সঙ্গে দেখা করে সরকার গঠনের দাবি জানাবেন তিনি। 

তবে তিরিশ তারিখে মোদীর সঙ্গে তাঁর মন্ত্রিসভাও শপথ নেবে কি না, তা এখনও স্পষ্ট নয়। সম্ভবত ওই দিন রাষ্ট্রপতি ভবনে একাই শপথ নেবেন প্রধানমন্ত্রী। বিকেল চারটে থেকে পাঁচটার মধ্যে শপথ নেওয়ার কথা প্রধানমন্ত্রীর। তার আগে আজ বিদায়ী মন্ত্রিসভার শেষ বৈঠক হতে চলেছে দিল্লিতে। 

৩০ তারিখ শপথ নেওয়ার আগে অবশ্য বেশ কিছু কর্মসূচি রয়েছে প্রধানমন্ত্রীর। ২৮ তারিখ মানুষকে ধন্যবাদ দিতে বারাণসীতে যেতে পারেন তিনি। সেখানে পুজো দেওয়ার পাশাপাশি রোড শোও করতে পারেন তিনি। এছাড়াও মা হীরাবেনের আশীর্বাদ নিতে গুজরাটেও যেতে পারেন নরেন্দ্র মোদী। তবে কবে তিনি গুজরাতে যাবেন, তা এখনও নিশ্চিত ভাবে জানা যায়নি। 

প্রথমবার প্রধানমন্ত্রীর শপথগ্রহণে চাঁদের হাট বসেছিল। বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে রাষ্ট্রনেতাদের আমন্ত্রণও জানানো হয়েছিল। তবে দ্বিতীয় বারের শপথ গ্রহণে সম্ভবত খুব বেশি সংখ্যক রাষ্ট্রনেতাদের ডাকা হচ্ছে না। তবে বিজেপি-র পক্ষ থেকে অতিথিদের তালিকা তৈরি করা হচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ভোটের ফল প্রকাশের আগেই জানিয়েছিলেন, ভোটে জেতার পরে দ্রুত কাজ শুরু করতে চায় তাঁর সরকার।