ভারতের ভাগ্য নির্ধারিত হবে আজ। শুরু হয়েছে ভোট গণনা। দেশ জুড়ে দেখা যাচ্ছে এক্সিট পোলের ইঙ্গিত মিলতে শুরু করেছে।  তবে নিজের কেন্দ্রে স্টিয়ারিং আবার ধরলেন রাহুল গান্ধী। সকাল থেকে পিছিয়ে থেকেও আমেঠিতে এগিয়ে গিয়েছেন তিনি। 

গোটা দেশের চোখ উত্তর প্রদেশের দিকে।  প্রত্যেকেই জানেন এই ৮০টি কেন্দ্র অনেক কিছু ঠিক করে দেবে। এ বছরের লোকসভা নির্বাচনে যাবতীয় রাজনৈতিক সম্ভাবনাকে নস্যাৎ করে  এখানে ইতিমধ্যেই যখন আবার ঝড় তুলতে শুরু করেছে গেরুয়া বাহিনী, পিছিয়ে গিয়েছেন স্বয়ং সোনিয়া গান্ধীও। এই অবস্থায় হাড্ডাহাড্ডি লড়ছে রাহুল গান্ধী এমনকি কেরালার ওয়ানারের লড়াই দিচ্ছেন রাহুল। 

আমেঠিতে রাহুলের এগিয়ে থাকা কংগ্রেসের পক্ষে এই মুহূর্তে ভীষণ ইতিবাচক। মনে রাখতে হবে এই আসনে স্মৃতি ইরানীর সঙ্গে লড়ছেন তিনি।  ২০১৪ সালে এক লক্ষ ভোটে এখানে রাহুল হারিয়েছিলেন স্মৃতিকে। গত কয়েক বছরে  নিয়মিত নিজের কেন্দ্রে এসেছেন।  যোগাযোগ রেখেছেন মানুষের সাথে। রাহুল এগিয়ে থাকাই বুঝিয়ে দিচ্ছে এখনও তার উপর আস্থা রাখছে আমি ঠিক। 

বলাই বাহুল্য একমাত্র ১৯৯৮ সাল ছাড়া গত তিন দশকে এই কেন্দ্রে হারেনি কংগ্রেস। 

তবে সমগ্র দেশজুড়ে কংগ্রেসের ভরাডুবির ইঙ্গিত দিচ্ছে এ যাবৎ গণনা। বিধানসভা ভোটের প্রেক্ষিতে মনে করা হয়েছিল  রাজস্থান, মধ্যপ্রদেশ, ছত্তিশগড়ে কংগ্রেস ভাল লড়াই দেবে। এখনও পর্যন্ত যতদূর গণনা, তাতে মনে হচ্ছে, লোকসভা ভোট ততটা সহায় হবে না।