গত কয়েকদিন ধরে জোর জল্পনা চলছিল তাঁকে ঘিরে। বিশেষত তিনি মুকুল রায়ের ঘনিষ্ঠ হওয়ায় ধরেই নেওয়া হয়েছিল শুভ্রাংশু রায়ের সঙ্গেই হয়তো বিজেপি-তে যোগ দেবেন ব্যারাকপুরের তৃণমূল বিধায়ক শীলভদ্র দত্ত। যদিও  সেই জল্পনায় নিজেই জল ঢেলে দিলেন ব্যারাকপুরের বিধায়ক। ফেসবুকে পোস্ট করে তাঁর দাবি, তিনি বিজেপি-তে যাচ্ছেন না, তৃণমূলেই থাকছেন। 

মুকুল রায় যখন তৃণমূলে ছিলেন তখন থেকেই তাঁর সঙ্গে ঘনিষ্ঠ যোগাযোগ ছিল শীলভদ্রের। ভোটের ফল বেরনোর পর থেকেই তাঁকে সেভাবে প্রকাশ্যে দেখাও যায়নি। তা থেকেই প্রবীণ এই তৃণমূল বিধায়কের বিজেপি-তে যোগ দেওয়ার জল্পনা ছড়ায়। যেহেতু মুকুল রায়ের ছেলে শুভ্রাংশুর এ দিনই দিল্লিতে বিজেপি-তে যোগদানের কথা, তাই শুভ্রাংশুর সঙ্গে শীলভদ্রও বিজেপি-তে যাচ্ছেন বলে দুইয়ে দুইয়ে চার করে নেওয়া হয়। 

সেই জল্পনায় ইতি টানতেই  মঙ্গলবার সকালে নিজেই ফেসবুকে পোস্ট করেন শুভ্রাংশ। সেখানে তিনি লেখেন, "আমি পাঁচ দিন ধরে হাসপাতালে ভর্তি। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দল করি। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে আছি এবং মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গেই থাকব।"
এই ফেসবুক পোস্টের কয়েকদিন আগেই ফেসবুকে আরও একটি ভিডিও বার্তা দিয়েছিলেন শীলভদ্র।  সেখানে তিনি বলেন, লিভার প্রতিস্থাপনের জন্য তিনি গুরুগ্রামের একটি হাসপাতালে ভর্তি হন। ভোটের ব্যস্ততার মধ্যেও দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বার বার তাঁর খবর নেওয়ায় দলনেত্রীকে ধন্যবাদ জানান ব্যারাকপুরের বিধায়ক। ব্যারাকপুরের প্রাক্তন সাংসদ দীনেশ ত্রিবেদীকেও ধন্যবাদ জানান তিনি। 

লোকসভা ভোটের ফলপ্রকাশের পর থেকেই তৃণমূলের ভাঙনের আশঙ্কা তীব্র। এই অবস্থায় শীলভদ্রের এই বার্তা দলীয় নেতৃত্বকে কিছুটা হলেও স্বস্তি দেবে।