টলি অভিনেত্রী মৌসুমী চট্টোপাধ্যায়ের মেয়ের মৃত্যুর পর থেকেই নানা গুঞ্জন চলেই আসছে। মৌসুমী নিজেই সে কথা স্বীকার করেছেন। পায়েলের স্বামী ডিকি সিনহার বিরুদ্ধে তিনি নানা অভিযোগ এনেছেন। ডিকি নাকি তার মেয়ের খেয়াল রাখতে পারতেন না। এমনকী হাসপাতাল থেকে পায়েলকে যখন বাড়িতে নিয়ে আসা হয়, তখনও নাকি সেভাবে খেয়াল রাখতেন না ডিকি। মেয়ের মৃত্যুর আগে থেকেই এই নিয়ে সরব হয়েছিলেন অভিনেত্রী। যা এখনও পর্যন্ত চলেই আসছে।

আরও পড়ুন-এ কী করছেন নুসরত, দেখলে চমকে যাবেন আপনিও...

জল্পনার ক্রমশ বেড়েই চলেছে। এবার মুখ খুললেন পায়েলের স্বামী ডিকি সিনহা। ঘনিষ্ঠ সূত্র থেকে জানা গেছে,  পায়েলের মৃত্যুর পর থেকেও মৌসুমীর সঙ্গে সিনহা পরিবারের সম্পর্ক আরও খারাপ হতে থাকে। এমনকী পায়েলের মৃত্যর পর নাকি মৌসুমী তার মেয়েকে একবারও দেখতে আসেননি। পায়েলের বাবা এবং বোন এসেছিলেন। শুধু তাই নয় বিয়ের পর পায়েল একবারও তার মায়ের বাড়ি পর্যন্ত যাননি।

আরও পড়ুন-'কী অপূর্ব দৃশ্য', উন্মুক্ত পিঠে সাহসী ফটোশ্যুটে ধরা দিলেন ইরা...

পায়েলের স্বামী ডিকি সিনহা আরও জানিয়েছেন, সম্পর্ক ভাল নয় বলে অন্যের নামে সবসময় খারাপ কথা বলতে হবে এর কোনও মানে হয় না।  অনেক পরিবারই ছেলে-মেয়েদের সম্পর্ক সবসময় মেনে নিতে পারেন না। কিন্তু তার জন্য এটা করা ঠিক নয়। যদিও এখনও পর্যন্ত পায়েলের মৃত্যুর পর এখনও পর্যন্ত মুখ খোলেননি মৌসুমী বা তার পরিবারের কেউ। ছোট থেকেই ডায়াবেটিসে আক্রান্ত ছিলেন পায়েল।