সায়নীর বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দায়ের করলেন তথাগত। ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাতের কারণ দেখিয়ে একাধিক অভিযোগ আনলেন অভিনেত্রী সায়নী ঘোষের বিরুদ্ধে বিজেপি নেতা তথাগত রায়। ভারতীয় দন্ডবিধির ২৯৫ এ ধারায়  কলকাতার রবীন্দ্রসরোবর থানায় সায়নীর বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দায়ের করলেন তথাগত। 

আরও পড়ুন, ' দিদি আমাদের বাঁচান', স্থায়ীকরণ-বেতনের দাবিতে মুখ্যমন্ত্রীকে রক্তে লেখা চিঠি পার্শ্বশিক্ষকদের

 ঘটনার সূত্রপাত একটি ছবিকে কেন্দ্র করে। ছয় বছর আগে ২০১৫ সালে  সায়নীর টুইটার থেকে পোস্ট করা ছবিটি ভাইরাল হয়। ছবিটিতে দেখানো হয়েছে শিবরাত্রী পালন করতে শিবলিঙ্গে কন্ডোম পরাচ্ছেন বুলাদি।  মূলত ওই কার্টুনটি সৃষ্টি হয়েছিল ১৯৯৮ সালে এইডসের বিরুদ্ধে সচেতনতা গড়ে তোলার জন্য। পরে সেই ছবিটি ব্যবহার করা হয় শিবরাত্রীর উৎসবকে কটাক্ষ করতে। সেই ছবিই টুইট করেছিলেন সায়নী। সম্প্রতি সেই ছবিটি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে যায়। তবে শুধু জল এখান থেকেই গড়াইনি। গোটা ঘটনাকে উসকে দেয় সাম্প্রতিককালে সায়নীর  'জয় শ্রীরাম' নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য়ে।

আরও পড়ুন, 'কাটমানির মতই ভাগাভাগি কেন্দ্রের ভ্যাকসিনও', তৃণমূল নেতাদের তোপ দিলীপের  

সম্প্রতি সায়নী বলেন, পশ্চিমবঙ্গকে সোনার বাংলা বানাবে কোনও দল, কেউবা বানাবে নবরত্ন। কিন্তু বাংলার মানুষ কি চায়, তা কি কেউ জানতে এসেছে। এদিকে ধর্ম-দেব-দেবী নিয়ে শুরু হয়েছে রাজনীতি। জয় শ্রীরাম ধ্বনিকে যেভাবে ক্রমশই রণধ্বনিতে পরিণত করা হয়েছে, তা কখনওই কাম্য নয়। ইশ্বরের নাম ভালবেসে বলা উচিত। এটা বাঙালির সংষ্কৃতির মধ্যে পড়ে না।  পশ্চিমবঙ্গকে সোনার বাংলা বানানো হবে এদিকে বাংলীর গর্ব সেই অমর্ত সেনকে নিয়েই টানাটানি। বাংলায় মনীষি বিবেকানন্দ-রবীন্দ্রনাথকে টেনে আনা হচ্ছে এই রীজনীতিতে। অনেকে বাংলায় এসে রবিঠাকুরের সিটেই সোজা বসে পড়ছেন, বলে নাম না করে অমিত শাহকে আক্রমণ করে বোল সফরের কথা মনে করিয়ে দেন সায়নী। এমনকী নাড্ডার দুয়ারে দুয়ারে শস্য গ্রহন নিয়ে তোপ দাগেন তিনি।