Asianet News BanglaAsianet News Bangla

সত্যজিৎ-র জন্ম শতবার্ষিকীতে 'জলসাঘর' গোখেল কলেজে, মহারাজাকে সেলাম জানাবে অর্পণা-শর্মিলারাও

  • ১৯২১ সালে কলকাতায় জন্মেছিলেন সত্যজিৎ রায় 
  • তাঁর জন্ম শতবার্ষিকী উপলক্ষে অনুষ্ঠান 'জলসাঘর' 
  • আয়োজন করছে  গোখেল কলেজের ইংরেজি বিভাগ
  • থাকবেন  শর্মিলা, ধৃতিমান, অপর্ণা, বরুণ চন্দ, মধুজা  
Gokhale Memorial Girls College organises   a three day event on Satyajit Ray RTB
Author
Kolkata, First Published Jul 1, 2021, 12:30 PM IST
  • Facebook
  • Twitter
  • Whatsapp

সত্যজিৎ রায়ের জন্ম শতবার্ষিকী উপলক্ষে বিশেষ অনুষ্ঠান 'জলসাঘর' করতে চলেছে এবার কলকাতার গোখেল মেমোরিয়াল গার্লস কলেজ। পয়লা জুলাই থেকে ৩ জুলাই, টানা তিন দিনের অনুষ্ঠানের আয়োজন করছে এই কলেজের ইংরেজী বিভাগের পড়ুয়ারা। ৩ দিনের এই অনুষ্ঠানে সত্যজিত রায়কে ঘিরে আন্তঃ কলেজ কুইজ প্রতিযোগিতা থেকে  'সত্যজিৎ এবং চলচিত্র আধুনিকতা' সহ আরও বিবিধ অনুষ্ঠান থাকছে। তবে 'জলসাঘর'-এর অন্যতম আকর্ষণ, যারা সত্যজিতের ছবিতে কাজ করেছেন অথবা তাঁর সঙ্গে নানা মুহূর্তে জড়িয়ে, তারাও থাকবেন এই অনুষ্ঠানে। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন শর্মিলা ঠাকুর, ধৃতিমান চট্টোপাধ্যায়, অপর্ণা সেন, বরুণ চন্দ, সিদ্ধার্থ চট্টোপাধ্য়ায়,ড. মধুজা মুখোপাধ্যায়  এবং আশোক বিশ্বনাথন। ।   

আরও পড়ুন, বনগাঁ লোকাল নয়, জাপানে ঠেলা মেরে ট্রেনে তোলে প্রোফেশনাল পুশার, রইল পৃথিবীর আজব কাজের হদিস  

 

 


 ২০২১-এর ২ মে সত্যজিৎ রায়ের জন্ম শতবার্ষিকী। আর তাই বাঙালি তথা সারা ভারতবাসীর প্রাণের দেবতা সত্যজিৎ-কে শ্রদ্ধা জানিয়ে টানা তিন দিনের  দীর্ঘ অনুষ্ঠানের আয়োজন করতে চলেছে এবার গোখেল মেমোরিয়াল গার্লস কলেজ। অনুষ্ঠান সূচিতে রয়েছে- 'সত্যজিৎ এবং চলচিত্র আধুনিকতা', 'আমার সত্যজিৎ' নামকরণে আন্তঃ কলেজের এসএ  প্রতিযোগিতা , 'মগজাস্ত্র' নামে আন্তঃ কলেজের কুইজ প্রতিযোগিতা। এবং টাইটেল অনুষ্ঠান 'জলসাঘর'-এ বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন শর্মিলা ঠাকুর, ধৃতিমান চট্টোপাধ্যায়, অপর্ণা সেন, বরুণ চন্দ, সিদ্ধার্থ চট্টোপাধ্য়ায় এবং ড. মধুজা মুখোপাধ্যায়।  এটি পরিচালনা করছেন আশোক বিশ্বনাথন।  'জলসাঘর' অনুষ্ঠানটি  ৩ জুলাই বিকেল পাঁচটায় সরাসরি লাইভ সম্প্রচার হবে। এর আগে 'মহারাজা তোমারে সেলাম' বলে একটি অডিও ভিশুয়াল প্রেজেন্টেশন রয়েছে। যার সময় বিকেল ৪টে। এর অফিসিয়াল পার্টনার ক্লিক-এর ওটিটি প্ল্যাটফর্ম। পাশাপাশি ভার্চুয়াল প্যানেল ডিসকরশন অর্থাৎ  'মহারাজা তোমারে সেলাম' নামকরণে আলোচনার অনুষ্ঠান বিকেল ৪টেয় হবে। যেখানে থাকবে বাংলা তথা ভারতের খ্যাতানামা পরিচালক তথা অভিনেতা-অভিনেত্রীরাও।

 

 

 আরও পড়ুন, BJP-র বৈঠকে বলতেই পারলেন না বঙ্গ নেতারা, হারের দায় কার, ক্ষোভের কথা কি রয়েই গেল মনে


প্রসঙ্গত, সত্যজিৎ রায়ের সঙ্গে কাজ করা অভিজ্ঞতা অনেক ছোট বয়েস থেকেই শর্মিলার। সত্যজিৎ পরিচালনায় অপুর সংসারে তিনি যখন অভিনয় করেছিলেন তখন তাঁর বয়েস মাত্র ১৩ বছর।  তাঁর প্রিয় 'মানিকদা'র পরিচালনায় উত্তমকুমারের বিপরীতে 'নায়ক' ছবিতেও অনবদ্য ছিলেন শর্মিলা। সত্যজিৎ রায় পরিচালিত প্রতিদ্বন্দি,গণশত্রু, আগন্তুক ছবিতে দক্ষ ভূমিকায় অভিনয় করতে দেখা গিয়েছে ধৃতিমান চট্টোপাধ্যায়কে। শুধুই শর্মিলা নন, সত্যজিতের পরিচালনায় 'তিন কন্যা' ছবিতে  ছোট্ট বয়েসেই অভিনয়ের ধার দেখিয়েছিলেন অপর্ণা সেন। মৃণ্ময়ী ভূমিকায় তিনি মাত্র পনেরো বছর বয়েসে অভিনয় করে যাত্রা শুরু করেছিলেন। ১৯৭১ সালে সত্যজিত রায় পরিচালিত ছবি 'সীমাবদ্ধ'তে দেখা যায় বরুন চন্দকে। আর তাঁর পরিচালিত ফেলুদার ছবিতে যাকে না দেখলেই নয়, সেই সবার প্রিয় তোপসের ভূমিকায় অভিনয় করেছিলেন সিদ্ধার্থ চট্টোপাধ্য়ায়। এরা প্রত্যেকেই সত্যজিৎ রায়ের জন্ম শতবার্ষিকীর বিশেষ অনুষ্ঠান 'জলসাঘর' -এ উপস্থিত থাকবেন।  থাকছেন যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে ফিল্ম স্টাডিজের প্রফেসর তথা ফিল্ম মেকার ড. মধুজা মুখোপাধ্যায় এবং সমগ্র অনুষ্ঠানটির পরিচালনায় থাকছেন সত্যজিৎ রায় ফিল্ম এন্ড টেলিভিশন ইন্সটিউটের প্রফেসর তথা ফিল্ম মেকার আশোক বিশ্বনাথন।  '

আরও দেখুন, মাছ ধরতে ভালবাসেন, বেরিয়ে পড়ুন কলকাতার কাছেই এই ঠিকানায়  

 

 

উল্লেখ্য, ১৯২১ সালে কলকাতা শহরেই জন্মেছিলেন সত্যজিৎ রায়। ব্রাহ্মসমাজের এক ঈশ্বরবাদ তাঁর ছবিতে উপরি পাওনা। গুপিগাইন-বাঘাবাইন ছবিতে 'দেখো রে জগতের কি বাহার' গানে, প্রকৃতির মাঝেই যে ইশ্বর রয়েছেন তার পরশ এসে লাগে ভারতবর্ষ তথা বিদেশেও। 'আরও বারো' লিখে তিনি যেমন মন কেড়েছেন, তেমনই ফেলুদার গোয়েন্দা গল্পে। নিজেই লিখলেন, আঁকলেন ছবি, দিলেন সুর, প্রাণ প্রতিষ্ঠা হল ফেলুদা-তোপসের। আর তামাম গোয়েন্দা গল্পের সমালোচনা করতে ভারী সুন্দর করে প্রবেশ করালেন লালমোহন বাবুকে। 'জয়বাবা ফেলুনাথ' থেকে 'আগুন্তুক' আজও লোকে ফিরে ফিরে দেখে। তবে তিনি তাঁর নিজে লেখা গল্পের বাইরে গিয়ে যেকটি ছবি করেছেন সেগুলিও অসাধারণ। নায়ক-ছবির ভিন্ন আঙ্গিক তাই গুরু বাক্য বহন করে। নাই বা ভূলবে সুনীল গঙ্গোপাধ্যায়ের গল্প অবলম্বনে তাঁর অন্যতম সৃষ্টি 'অরণ্য়ের দিন রাত্রী।' আজও শর্মিলা ঠাকুর তো বটেই, রবি ঘোষের অবলীল হাসি তথা শমিত ভঞ্জের নিস্পাপ চোখ দেখতে লোকে ব্ল্যাক এন্ড হোয়াইট দৃশ্যেই ডুবে যায়।  আবার রাজনৈতিক গল্প খুব সহজে শিশুদের ছবি  'হিরক রাজার দেশ' তৈরি করে, 'কতই রঙ্গ দেখি দুনিয়ায়' কিউবার ছোয়া দিয়ে যায় নিঃশ্বব্দে। তাঁর ছবিতে অভিনয় করার জন্য সব অভিনেতা-অভিনেত্রীই অপেক্ষায় থাকতেন। একথা শোনা যায় অপর্ণা সেনের মুখেও।  

 

 

আরও পড়ুন, ভাইরাসের ভয় নেই তেমন এখানে, ঘুরে আসুন ভুটানে  

আরও পড়ুন, রাজ্য়ের সর্বনিম্ন সংক্রমণ এই জেলায়, বৃষ্টিতে হারাতেই পারেন পুরুলিয়ার পাহাড়ে 

আরও দেখুন, বৃষ্টিতে বিরিয়ানি থেকে তন্দুরি, রইল কলকাতার সেরা খাবারের ঠিকানার হদিশ  

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios