টানা নির্বাচনী প্রচার করার পরে বিপুল ভোটে জয়ী হয়েছেন যাদবপুর কেন্দ্রের তৃণমূল প্রার্থী মিমি  চক্রবর্তী। সাংসদ হিসেবে পা রেখেছেন সংসদ ভবনেও। অভিনয় জগতে এই মুহূর্তে কম সময় দিতে পারলেও, পেশার জায়গা তো একেবারে ছেড়ে দেওয়া যায় না। তাই রাজনীতি ও অভিনয় দুটোকেই ব্য়ালান্স করতে হচ্ছে মিমিকে। আর সেটা করতে গিয়েই শরীরের দিকে সেভাবে আর নজর দিতে পারছেন না মিমি চক্রবর্তী। নিজেই ইনস্টাগ্রামে জানালেন মিমি। 

বুধবার ইনস্টাগ্রাম স্টোরিতে শেয়ার করেন মিমি, তাঁর ব্লাড প্রেশার লেভেল অনেকটাই কমে গিয়েছে। দেখা যাচ্ছে মিমির ব্লাড প্রেশার ৯২/৫৯, যা স্বাভাবিকের থেকে বেশ খানিকটা কম। ছবিটিতে ক্য়াপশনে তিনি লিখেছেন, "ফিলিং লো আই মিন লিটেরালি (লো বিপি)।"

 

প্রসঙ্গত, সোমবার প্রথম বার সংসদ ভবনে পা রাখলেন মিমি-নুসরত। দুজনেই সংসদ ভবনের সামনে দাঁড়িয়ে ছবি তুলে তা সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করেছেন। সাদা শার্ট, ব্লু জিন্স, পায়ে স্নিকার্স আর চোখে রোদ চশমা দিয়ে সংসদ ভবনের। ছবির ক্যাপশনে তিনি লিখেছেন, সংসদ ভবনে প্রথম দিন। আমাকে আশীর্বাদ করুন ও সমর্থন করে যান।

নুসরত এদিন একটি বার্গান্ডি রংয়ের ফর্মাল স্যুট পরে পৌঁছে যান সংসদ ভবনের সামনে। স্যুটের সঙ্গে সানগ্লাস পরে রাজনীতির ময়দানেও ফ্যাশনিস্তা লাগছিল তারকাকে। নুসরত নিজের ছবি পোস্ট করে ক্যাপশনে লেখেন, একটা নতুন শুরু। ধন্যবাদ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং বসিরহাটের মানুষ, যাঁরা আমায় বিশ্বাস করেছেন।

সংসদ ভবনের সামনে ছবি তোলার জন্যও এই দুই তারকা সাংসদকে ট্রলড হতে হচ্ছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। শাড়ি না পরে পশ্চিমী পোশাকে কেন পোজ দিয়ে ছবি তুলেছেন এই নিয়ে আলোচনা চলছে। যদিও এর বিপক্ষেও অনেকে মতামত দিয়েছেন।  

মঙ্গলবার রামগোপাল বর্মাও এই তুই তারকা সাংসদকে নিয়ে একটি টুইট করেন। তাঁদের পুরনো একটি টিকটক ভিডিও শেয়ার করে তিনি লেখেন  "ওয়াও ওয়াও ওয়াও!!! বাংলার নতুন সাংসদ মিমি চক্রবর্তী ও নুসরত জাহান। ভারত সত্যি প্রগতির পথে এগোচ্ছে। সাংসদ হিসেবে এদের চোখে দেখেও শান্তি।"