এতদিন তিনি ছিলেন কেবলই একজন টলিউড অভিনেত্রী। কিন্তু বর্তমানে সেই তকমা গিয়েছে ঘুচে। এখন দায়িত্ব কেবলই দর্শকদের মনোরঞ্জন করা নয়, বরং এখন তিনি স্থানীয় মানুষদের অভিভাবকও বটে। ২০১৯ এর লোকসভা নির্বাচনের পর এভাবেই বদলে গিয়েছিল মিমি চক্রবর্তীর জীবনের সমীকরণ। সেদিকে নজর রেখেই নিজের জীবনে ভারসাম্য রাখার চেষ্টা করে এসেছেন তিনি।

কখনও নিজের স্বপ্ন পূর্ণরে অঙ্গিকার, কখনও আবার মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে দুর্গতের প্রতি সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেওয়া। কখনই পিছু পা হতে দেখা যায়নি তাঁকে। শিশু দিবসেও সেই একই ছবি ধরা দিল সাংসদের সোশ্যাল মিডিয়ার পাতায়। বিগত কয়েকমানে মানুষের আরও অনেকটা কাছে পৌঁছে গিয়েছেন তিনি। তেমনটাই এক সময় স্বপ্ন ছিল তাঁর। এবার দায় কাঁধে আসার পরই বিভিন্ন ক্ষেত্রে মানুষের পাশে দাঁড়ানোর জন্য পা বাড়িয়েছেন। 

 

 

বিধায়ক হিসেবে অনেক অনুষ্ঠান থেকে কর্মসুচীতেই অংশগ্রহণ করতে হয় মিমি চক্রবর্তীকে। খুদে শিশুদের কোলে তুলে নিয়ে মানুষের মাঝে তাঁর মিশে থাকার প্রয়াসকেও সাধুবাদ জানিয়েছেন অনেকে। তাই শিশু দিবসে শেয়ার করলেন এলাকার মানুষদের সঙ্গে কাটানো বেশ কিছু মুহুর্তের ছবি। প্রতিটি ছবিতেই স্নেহই যেন নজর কাড়ল সকলের। কোলে শিশুদের নিয়ে একাধিক পোজে তোল ছবির কোলাজই তিনি তুলে ধরলেন শিশু দিবসের শুভেচ্ছাবার্তায়। এখানেই শেষ নয়, স্থানীয় মানুষ যাঁরা ঝড়ের দাপটে ক্ষতিগ্রস্ত তাঁদের প্রতিও বাড়িয়ে দিলেন সাহায্যের হাত।