হাতে সময় একেবারেই নেই। নতুন বিদেশি দলে নেওয়ার আগে অনুশীলনে দেখে নেওয়ার মতো সময়ও নষ্ট করতে চান না লাল হলুদ কর্তারা। সেই কারণেই চেনা বিদেশির উপরেই ভরসা রাখলেন তাঁরা। আর সেই কারণেই ফের লাল হলুদ জার্সিতে প্রত্যাবর্তন ঘটছে আনুমানা ক্রোমার। লাল হলুদের হয়ে সইও করে দিয়েছেন কলকাতা ফুটবল লিগের সর্বোচ্চ গোলদাতা ক্রোমা। কোয়েস ইস্টবেঙ্গলের পক্ষ থেকে বিবৃতি দিয়ে সেকথা জানিয়েও দেওয়া হয়েছে। ৩১ মে পর্যন্ত ক্রোমার সঙ্গে চুক্তি করেছে ইস্টবেঙ্গল। 

মঙ্গলবারই ইস্টবেঙ্গল কোচের পদ থেকে ইস্তফা দিয়েছেন কোচ আলেজান্দ্রো। নতুন কোচ হিসেবে তা নিয়ে চলছে জল্পনা। তবে কোনও বিদেশিকেই যে লাল হলুদ কোচের হটসিটে বসানো হবে, সেটা নিশ্চিত। ক্লাবের অন্দরে কান পাতলে মূলত দু'টি নাম উঠে আসছে। একজন হলে মারিও, যিনি গত মরশুমে আলেজান্দ্রোর সহকারী হিসেবে ইস্টবেঙ্গলেই কাজ করে গিয়েছেন। ফলে দলের ফুটবলারদের থেকে শুরু করে ক্লাবের পরিবেশ সম্পর্কে ওয়াকিবহল তিনি। আর দ্বিতীয় যাঁর নাম উঠে আসছে, তিনি হলেন প্রাক্তন মোহনবাগান কোচ করিম বেঞ্চারিফা।

আরও পড়ুন- ডার্বিতে হারের ধাক্কা, ইস্টবেঙ্গল কোচের পদে ইস্তফা আলেজান্দ্রোর

মোহন বাগানে কোচিং করানোর পাশাপাশি চার্চিল, সালগাওকরের মতো ক্লাবের দায়িত্ব সামলেছেন করিম। সালগাওকরকে আই লিগ জিতিয়েছেন। শোনা যাচ্ছে আলেজান্দ্রোর পদত্যাগের পর করিম নিজেই ইস্টবেঙ্গল কর্তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করেছেন। এই মুহূর্তে ফাঁকাও রয়েছেন মরোক্কান কোচ। 

পিয়ারলেসকে কলকাতা লিগে চ্যাম্পিয়ন করার পরে ভারতে ভাল প্রস্তাব না পেয়ে মালয়েশিয়া চলে গিয়েছিলেন ক্রোমা। সেখানকার ক্লাবে খেলে ফের কলকাতায় এসে ভবানীপুরে যোগ দিয়েছিলেন তিনি। লাল- হলুদে  সুযোগ পাওয়ার পর আর দ্বিতীয়বার ভাবেননি লাইবেরিয়ান। মার্কোসের সঙ্গে তাঁর জুটি লাল- হলুদ সমর্থকদেক মুখে হাসি ফোটায় কি না, সেটাই এখন দেখার।