মস্তিষ্কে অস্ত্রোপচারের পর অবশেষে হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেলেন ফুটবলের রাজপুত্র দিয়াগো মারাদোনা। তবে হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেলেও স্বস্তি নেই ফুটবল জাদুকরের। হাসপাতাল থেকে তাকে পাঠানো হল রিহ্যাব সেন্টারে। অতিরিক্ত মাদক নির্ভরতা কাটাতেই এই সিদ্ধান্ত নিয়ছেন চিকিৎসকরা। বুয়েন্স আয়ার্সের এক রিহ্যাব সেন্টারে পাঠানো হয়েছে দিয়াগো মারাদোনাকে। সেখানে মারাদোনার মাদক আসক্তি কাটানোর চেষ্টা করা হবে। তার স্বাস্থ্যের উন্নতির যা খুবই জরুরি। 

৬০ তম জন্মদিন পালনের কয়েকদিন পরই অসুস্থ হয়ে পড়েছিলেন মারাদোনা। তড়িঘড়ি তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। প্রথমে ভাবা হয়েছিল হৃদরোগে আক্রান্ত হয়েছেন মারাদোনা,গুজব রটেছিল করোনা আক্রান্ত হয়েছে দিয়াগো। কিন্তু পড়ে জানা য়ায়, মারাদোনার মস্তিষ্কে রক্তক্ষরণ হচ্ছিল। সেই কারণেই অসুস্থ হয়ে পড়েন ৮৬-র বিশ্বজয়ের নায়ক। দ্রুত বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের তত্ত্বাবধানে তার মস্তিষ্কে  অস্ত্রোপচার করা হয়। সফল অস্ত্রোপচারের ৮ দিন পর হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেলেন মারাদোনা। 

হাপাতাল থেকে ছাড়া পেলেও, চিকিৎসকরা জানিয়েছেন মাদক থেকে মারাদোনা দূরে রাখতে না পারলে, ভবিষ্যতে আরও সমস্যা হতে পারে। সেই কারণেই তাকে রিহ্যাব সেন্টারে পাঠানো হচ্ছে।  মারাদোনার ব্যক্তিগত চিকিৎসক লিওপোল্ডো লুকে সংবাদমাধ্যমের সাথে কথা বলেছেন। লুকে ইন্সটাগ্রামে ৬০ বছর বয়সী মারাদোনাকে জড়িয়ে ধরে একটি ছবি পোস্ট করেছেন। যেখানে মারাদোনার মাথার একপাশে ব্যান্ডেজ দেখা গেছে। দ্রুত মারাদোনার সুস্থতা কামনা বিশ্ব জুড়ে তার কোটি কোটি ভক্তদের।