Asianet News BanglaAsianet News Bangla

Cristiano Ronaldo Statue Controversy: গোয়ায় রোনাল্ডোর মূর্তি স্থাপন নিয়ে শুরু রাজনৈতিক তরজা

গোয়ায় (Goa) স্থাপিত হয়েছে ভারতের মাটিতে প্রথম ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোকে  (Cristiano Ronaldo)। নতুন প্রজন্মের ফুটবলারদের উদ্বুদ্ধ করতেই এই উদ্যোগ গোয়ার বিজেপি সরকারের (BJP Government)। কিন্তু এবার তা নিয়েও  শুরু রাজনৈতিক তকজা।
 

Cristiano Ronaldo statue inaugurated by goa bjp government create political controversy spb
Author
Kolkata, First Published Dec 30, 2021, 1:28 PM IST
  • Facebook
  • Twitter
  • Whatsapp

ভারতের (India) মাটিতে প্রথম স্থাপিত হল পর্তুগীজ ফুটবল তারকা তথা বিশ্ব ফুটবলের অন্যতম সেরা নায়ক ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোর (Cristiano Ronaldo) মূর্তি। গোয়ার পানাজিতে (Panaji) স্থাপন করা হয়েছে এই মূর্তি। তারকা ফুটবলারের মূর্তিটি স্থাপন করা হয়েছে গোয়া (Goa) সরকারের তরফ থেকে। গোয়ার ফুটবলের মানোন্নয়নের জন্য ও আগামি প্রজন্মের ফুটবলারদের ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোকে আইডল  মেনে উদ্বুদ্ধ করার জন্যই এই উদ্যোগ গোয়ার বিজেপি সরকারের (BJP Government)। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত  ছিলেন গোয়ার বিধায়ক তথা মন্ত্রী মাইকেল লোবো (Michael Lobo) সহ অন্যন্যারা। তবে গোয়ার বুকে ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোর মূর্তি স্থাপন ঘিরে তৈরি হয়েছে রাজনৈতিক তরজাও। রাজ্যের জাতীয় স্তরের ফুটবলারদের বাদ দেওয়ার পাশাপাশি গোয়াকে যেই পর্তুগীজরা একসময় পরাধীন করে রেখেছিল সেই দেশের তারকার মূর্তি স্থাপন করা নিয়েও উঠছে প্রশ্ন। একইসঙ্গে গোয়ার স্বাধীনতা সংগ্রামীদেরও অপমান করা হয়েছে বলেও শুরু হয়েছে সমালোচনা।

ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোর পিতলের মূর্তিটির ওজন প্রায় ৪১০ থেকে ৪১৫ কেজি। ই মূর্তি তৈরিতে প্রায় ১২ লক্ষ টাকা খরচ হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। এটি তৈরি করতে প্রায় তিন বছর সময় লেগেছে। গোয়ার মন্ত্রী মাইকেল লোবো  বলেছেন, ‘আমরা যুবকদের অনুপ্রাণিত করতে এবং রাজ্যে, দেশে ফুটবলকে পরবর্তী স্তরে নিয়ে যাওয়ার জন্য এই মূর্তিটি তৈরি করেছি। আমরা চাই আমাদের বাচ্চারা এই মহান ফুটবলারের মতো হোক। যিনি একজন বিশ্ব কিংবদন্তি।’ এছাড়াও তিনি বলেছেন, ‘এই প্রথম ভারতে ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোর মূর্তি স্থাপন করা হল। এটা আমাদের তরুণদের অনুপ্রেরণা ছাড়া আর কিছুই নয়। এই মূর্তির সামনে সেলফি তুলুন এবং মূর্তির দিকে তাকান, পাশাপাশি এই গেমটি খেলতে অনুপ্রাণিত হন। সরকার, পৌরসভা এবং পঞ্চায়েতের কাজ হল ভালো পরিকাঠামো, ভালো ফুটবল মাঠ প্রদান করা। একইসঙ্গে অনুপ্রাণিত করা।'

 

 

তবে এই মূর্তিস্থাপনের বিরোধীতা করেছেন কিছু ডানপন্থী সংগঠন। কালো পতাকা নিয়ে দেখিয়েছেন বিক্ষোভও। তাদের বক্তব্য,  রোনাল্ডোর একটি মূর্তি স্থাপন করা যিনি একজন পর্তুগিজ নাগরিকতা গোয়ার জন্য ও গোয়াবীসর জন্য অপমান, বিশেষ করে যখন রাজ্যটি পর্তুগিজ শাসন থেকে মুক্তির ৬০তম বার্ষিকী উদযাপন করছে। রোনাল্ডোর মূর্তির বদলে গোয়া প্লেয়ার তথা ভারতীয় জাতীয় দলের তারকা ফুটবলার, অর্জুন পুরষ্কার প্রাপ্ত ব্রুনো কুটিনহোর মূর্তি বসানোরও দাবি জানিয়েছে বিক্ষোভকারী। সমালোচকদের জবাবও দিয়েছেন মাইকেল লোবো। বলেছেন,‘কিছু লোক এই মূর্তি স্থাপনের প্রতিবাদ করছে। এই একই লোক যারা খেলাধুলায় দেশকে এগিয়ে যেতে দেখতে পারে না। যারা মূর্তি স্থাপনের বিরোধিতা করেছে, আমি মনে করি তারা হার্ডকোর ফুটবলকে ঘৃণা করে। তারা ফুটবলকে ধর্ম বলে বিশ্বাস করে না। ফুটবল এমন একটি খেলা যেখানে জাতি, বর্ণ, ধর্ম ইত্যাদি নির্বিশেষে সবাই সমান।'

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios