ভারতের অন্যতম বৃহৎ সিমেন্ট কোম্পানি শ্রী সিমেন্টের সাথে চুক্তি করে ইস্টবেঙ্গলের শ্রী-বৃদ্ধি অব্যাহত। দেশীয় খেলোয়াড়দের আগেই চূড়ান্ত করে রেখেছেন লাল-হলুদ কর্তারা। এবার পালা ভালো মানের বিদেশি এনে আইএসএলের উপযোগী শক্তিশালী দল গঠনের। এফএসডিএলের পক্ষ থেকে প্রকাশিত অনলাইনে দরপত্র গ্রহণ করে আইএসএল খেলার দিকে আরও একধাপ এগিয়ে গিয়েছে লাল-হলুদ শিবির। এই মুহুর্তে ইস্টবেঙ্গল ক্লাবের নজর আছে কিছু ভালোমানের বিদেশীদের উপর। জানা গিয়েছে, ইনভেস্টর এবং ক্লাবকর্তাদের জরুরি বৈঠকে বেশ কিছু সেরা বিদেশীদের নাম উঠে এসেছে।

আরও পড়ুনঃআইপিএল শুরুর আগে হঠাৎ তড়িঘড়ি আরব গেলেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়, কারণটা কি

যদিও বিদেশী চূড়ান্ত হবে কোচের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, কিন্তু সময় যেহেতু কম তাই কোচের সুবিধার্থে বিদেশী তালিকা তৈরি রাখছে ইস্টবেঙ্গল। এই সব বিদেশীদের নিজেদের দলে নিতে বিশেষ জোর দিচ্ছে ইস্টবেঙ্গল কর্তারা। এই তালিকায় রয়েছেন ২০১৮ বিশ্বকাপে স্পেনের বিরুদ্ধে খেলা রুশ ডিফেন্ডার ভ্লাদিমির গ্রানাট। ইতিমধ্যেই তাঁর এজেন্টের সাথে কথাবার্তা শুরু করেছেন কর্তারা। ৩৩ বছরের এই তারকা ডিফেন্ডারকে পেতে মরিয়া ইস্টবেঙ্গল, এমনটাই শোনা যাচ্ছে। আরও জানা গিয়েছে, জার্মান তারকা মিডফিল্ডার টোলগে আর্সলানকে তালিকার মধ্যে রেখেছে ইস্টবেঙ্গল। তার্কিশ লিগের দুই হেভিওয়েট ক্লাব ফেন্যারব্যাচ এবং বেসিকতাসের হয়ে মোট ১১৩ টি ম্যাচ খেলেছেন আর্সলান। যদিও এই মিডফিল্ডারকে পেতে প্রায় নয় কোটি টাকা খরচ করতে হবে ইস্টবেঙ্গলকে। 

আরও পড়ুনঃকেন সেওয়াগকে 'জুতোপেটা' করেছিলেন তার মা, জানুন সেই কাহিনি

এছাড়াও ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের অতি পরিচিত সেনেগালের স্ট্রাইকার প্যাপি সিসেকে পেতেও নাকি ইতিমধ্যেই কথাবার্তা শুরু করেছে ইস্টবেঙ্গল। বার্সেলোনার প্রাক্তন মিডফিল্ডার ইব্রাহিম অ্যাফেলায়ের মতো এক সময় বিশ্ব ফুটবলের নজরকাড়া ফুটবলারের পিছনেও রয়েছে ইস্টবেঙ্গল। ৩৪ বছরের এই মিডিওকে পেতে সাড়ে তিন কোটি টাকা খরচ করতে হবে ইস্টবেঙ্গলকে। তা বাদে উঠে আসছে মরোক্কান লিগে খেলা এক দক্ষ স্ট্রাইকারের নাম। তার নাম আয়ুব এল খায়াবি। ২৭ বছর বয়সী এই বিদেশির বায়োডেটা পছন্দ হয়েছে লাল হলুদ ক্লাবের কর্তাদের। কোচ নিশ্চিত হলে খুব সম্ভবত এই কয়েকজনের বায়োডেটাই তুলে দেওয়া হবে তার হাতে। এদের পাশাপাশি গত মরসুমের বিদেশীদের মধ্যে হুয়ান মেরা কিংবা কোলাডোকে ও ওমিদ সিংকেও পেতে চলেছে লাল-হলুদ শিবির।

আরও পড়ুনঃকষা মাংসের প্রতি প্রেম, জিভের টানেই কলকাতায় আসতে চান ডেভিড বেকহ্যাম